kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

গাড়ি থেকে ফেলে যাত্রী হত্যা

বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মহাসড়কে বেপরোয়া গতি আর অন্য গাড়ির সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে গাড়ি চালানোর প্রতিবাদ করায় হত্যা করা হলো বাসযাত্রী সাদিককে। গত সোমবার সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশালে এ ঘটনা ঘটে। চিকিত্সাধীন অবস্থায় রাতেই ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান বাসযাত্রী সাদিকুর রহমান (৩৫)। সাদিক হত্যার বিচারের দাবিতে গতকাল বুধবার বিকেলে এলাকাবাসী মানববন্ধন করেছে।

জানা যায়, ত্রিশাল উপজেলার রায়মনি গ্রামের সুরুজ আলীর ছেলে ফার্নিচার ব্যবসায়ী সাদিকুর রহমান গত সোমবার গাজীপুর থেকে সৌখিন পরিবহনের একটি বাসে (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪-৯৪২২) ত্রিশাল ফিরছিলেন। ঢাকা থেকেই বাসটি বেপরোয়া গতিতে চালাচ্ছিলেন চালক সোহেল। ভালুকা আসার পর কয়েকটি বাসের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে এগিয়ে এসে জোরে ব্রেক করায় যাত্রীরাও আসন থেকে ছিটকে পড়ে। এ সময় সাদিকুর চালককে ধীরে গাড়ি চালানোর জন্য অনুরোধ করলে হেলপারের সঙ্গে বাগিবতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে হেলপার ও বাসের সুপারভাইজার (অজ্ঞাত) মিলে সাদিকুরকে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেন। গাড়িতে থাকা অন্য যাত্রীরা ঘটনার প্রতিবাদ করলে কিছু দূর যাওয়ার পর চালক বাস থামিয়ে নেমে যান। ড্রাইভারের সঙ্গে হেলপার ও সুপারভাইজার পালিয়ে যান। স্থানীয় লোকজন সাদিকুরকে প্রথমে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে তাঁর মৃত্যু হয়। ত্রিশাল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বাসটি আটক করে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই তাজুল বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। বুধবার বিকেলে স্থানীয় এলাকাবাসী নিহত সাদিক হত্যার বিচারের দাবিতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে মানববন্ধন করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা