kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

অভয়নগরে হাসপাতালে ডায়রিয়ার রোগী বাড়ছে

মেঝেতে রেখে সেবা

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি   

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রচণ্ড দাবদাহে যশোরের অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। গত এক সপ্তাহে প্রায় ৫০ জন রোগী ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে; যার মধ্যে শিশু রোগীর সংখ্যা বেশি। স্থান সংকুলান না হওয়ায় হাসপাতালের বারান্দার মেঝেতে রেখে রোগীর সেবা দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, গত এক সপ্তাহের দাবদাহে পানিবাহিত রোগ ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, জ্বর ও সর্দি-কাশির রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। শিশু রোগীর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। হাসপাতালের বারান্দার মেঝেতে প্রায় ৪০ জন রোগী রাখতে হয়েছে। জনবল সংকটের কারণে চিকিৎসকদের অতিরিক্ত শ্রম দিতে হচ্ছে। উপজেলার গুয়াখোলা গ্রামের আ. রহিমের স্ত্রী ফাতেমা বলেন, ‘ছয় বছর বয়সী একমাত্র মেয়েকে নিয়ে হাসপাতালে এসেছি। মহিলা ওয়ার্ডের বেড খালি না থাকায় বারান্দার মেঝেতে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন ডাক্তাররা।’

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মারুফুজ্জামান বলেন, ‘রোটা ভাইরাসের কারণে শিশু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। অতিরিক্ত রোগী হওয়ায় বারান্দার মেঝেতে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে চিকিৎস্যব্যবস্থায় কোনো ঘাটতি নেই।’

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. এস এম মাহমুদুর রহমান রিজভী বলেন, ‘গত এক সপ্তাহে শিশুসহ প্রায় ৫০ জন ডায়রিয়া রোগী ভর্তি হয়েছে। ডায়রিয়ার সবচেয়ে বড় ওষুধ খাওয়ার স্যালাইন।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা