kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

সালিশে অপবাদ ছাত্রের আত্মহত্যা

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুরির অপবাদ দিয়ে মারধর ও জরিমানা করার কারণে রাগে-ক্ষোভে শিক্ষার্থী রাব্বি হাসান (১৫) আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কড়ুইগাছি গ্রামে। কড়ুইগাছি গ্রামের চেনির উদ্দিনের ছেলে নিহত রাব্বি হাসান স্থানীয় কেএবি বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে রাব্বি হাসান ও তার সহপাঠী জনি স্থানীয় কছিমুদ্দিনের দোকানে কিছু কিনতে যায়। এ সময় কছিমুদ্দিন দোকানে শুয়ে ছিলেন। তারা দুজন দোকানে চুরি করতে এসেছে সন্দেহে দোকান মালিক তাদের ধরে রশি দিয়ে বেঁধে রেখে এলাকাবাসীকে খবর দেয়। এলাকার কয়েকজন প্রভাবশালী ওই দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের পাশাপাশি তাদের অভিভাবককে ডেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে। এই অপবাদ সইতে না পেরে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রাব্বি হাসান বাড়ি ফিরে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

নিহতের বাবা চেনির উদ্দিন বলেন, ‘সাবেক মেম্বার আবদুল হান্নান হনা, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হাসান রাজা সেন্টু ও রাইপুর গ্রামের হুদা চুরির অপবাদ দিয়ে তাঁর ছেলেকে মারধর ও জরিমানা করেছে। এই অপবাদ সইতে না পেরে ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে। আমরা এ হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।’

এদিকে এ ঘটনার পর থেকে ওই মাতবররা আত্মগোপন করায় তাঁদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

রাইপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সাকলায়েন সেপু জানান, সালিসকারীরা কাজটা ঠিক করেননি। তাঁদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার জানান, কেউ চুরি বা অন্যায় করলে তার বিচারের জন্য আইন আছে। সালিসকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাঁদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা