kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

ভৈরবে সহকারী প্রকৌশলীর অনিয়ম-দুর্নীতি তদন্তেই ক্ষান্ত

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৮ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কিশোরগঞ্জের ভৈরবের শিমুলকান্দি বিদ্যুৎ অফিসের সহকারী প্রকৌশলী মফিজ উদ্দিন খানের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দীর্ঘদিন ধরে আটকে আছে। ফলে তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় কোনো ব্যবস্থা নেওয়া যাচ্ছে না।

অভিযোগ রয়েছে, সহকারী প্রকোশলী মফিজ উদ্দিন খান ২০০৯ সালে শিমুলকান্দি বিদ্যুৎ অফিসে যোগদানের পর থেকেই অবৈধ অর্থ বাণিজ্য, নানা অনিয়ম আর দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েন। প্রধান কর্মকর্তার নেতৃত্বে অফিসের অন্য কর্মচারীরাও এখন বিভিন্ন অনিয়মের জালে জড়িয়ে গেছেন। আর তাঁদের এসব কর্মকাণ্ডে ওই বিদ্যুৎ অফিসের আওতাভুক্ত উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের প্রায় আট হাজার আবাসিক বিদ্যুৎ গ্রাহকসহ আরো দুই শতাধিক সেচ পাম্প ব্যবহাকারী বিপাকে পড়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে চলতি বছরের মার্চে উপজেলার শ্রীনগর ইউনিয়নের বধূনগর গ্রামের শতাধিক গ্রাহক বধূনগর-জাফরনগর সড়কে ঝাড়ু মিছিল, মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ করে। এ ঘটনায় তাঁর অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করার জন্য ভৈরব বিদ্যুৎ অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলামকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু দুই মাস পেরিয়ে গেলেও তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা না দেওয়ায় গ্রাহকদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে করা অভিযোগের আংশিক সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার বিষয়ে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি তিনি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা