kalerkantho

সোমবার। ২৭ মে ২০১৯। ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২১ রমজান ১৪৪০

টুঙ্গিপাড়া

বাড়তি টাকা না দিলে এক্স-রে হয় না

টুঙ্গিপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৬ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অনুকূল চন্দ্র পাণ্ডে। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক্স-রে টেকনিশিয়ান তিনি। যেকোনো ধরনের এক্স-রের জন্য রোগীদের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে নেওয়ার নিয়ম থাকলেও অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। অন্যথায় এক্স-রে করান না তিনি। আরো অভিযোগ, মনমতো এক্স-রে বিভাগটি চালান তিনি।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিটি এক্স-রের জন্য রোগীদের কাছ থেকে ২৫০-৩০০ টাকা নিয়ে থাকেন অনুকূল। কিন্তু টাকা নেওয়ার কোনো রসিদ দেন না। আর কেউ রসিদ চাইলে তিনি ‘রসিদ নেই। টাকা দিলে দেন, না দিলে এক্স-রে হবে না’ বলে জানিয়ে দেন। এ ছাড়া খেয়াল-খুশিমতো এক্স-রে বিভাগটি চালান তিনি।

ভুক্তভোগী উপজেলার পাটগাতী গ্রামের জামাল উদ্দিন অভিযোগ করেন, সন্তানের বুকের এক্স-রে করাতে গেলে তাঁর কাছে ৩০০ টাকা চান অনুকূল। কিন্তু রসিদ চাইলে তা দেননি। এ ছাড়া অনুকূল তাঁকে বলেন ‘এক্স-রে করলে করবেন, না করলে না করবেন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত অনুকূল কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ বলেন, ‘প্রতিটি এক্স-রে বাবদ তিনি (অনুকূল) ২০০ টাকা নিতে পারবেন, যেটা সরকারি কোষাগারে জমা হবে। কিন্তু এর থেকে বেশি নেওয়া যাবে না। এ ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে আগে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়ায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

 

মন্তব্য