kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

নাজিরপুরে দাবি করা টাকা না পেয়ে গৃহবধূকে নির্যাতন

নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি    

২৫ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



পিরোজপুরের নাজিরপুরে দাবি করা টাকা না পেয়ে গৃহবধূ রহিমা বেগমকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। এ সময় রহিমাকে বাঁচাতে গেলে তাঁর ভাই রাজীবকেও মারধর করা হয়। গত মঙ্গলবার দেউলবাড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে গতকাল বুধবার মেয়ের জামাই নুরু মোল্লা, শ্বশুর জাহাঙ্গীর মোল্লা, শাশুড়ি রেসিয়া বেগম ও ভাশুর নেয়ামত মোল্লার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন সুলতান হাওলাদার।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. মুনিরুল ইসলাম মুনির জানান, দুই বছর আগে দেউলবাড়ীর রহিমার সঙ্গে একই গ্রামের নুরুর বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন তিন লাখ টাকা দিতে রহিমাকে চাপ দিচ্ছিল। এ অবস্থায় মেয়ের জামাইকে এক লাখ ২০ হাজার টাকা দামের দুটি গাভি কিনে দেন সুলতান। তবু স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন রহিমাকে শারীরিক নির্যাতন করে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। মঙ্গলবার সকালে নুরু তার মা-বাবা ও ভাইকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে যায়। সেখানে গিয়ে টাকা চাইলে রহিমার বাবার সঙ্গে তাদের ঝগড়া হয়।

মন্তব্য