kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

দিনেও মশারি টানিয়ে পড়তে হয়

মোবারক আজাদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) মশার উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে শিক্ষার্থীরা। মশার কামড়ে আবাসিক হলগুলোতে শিক্ষার্থীদের টিকে থাকাই যেন দায় হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে সন্ধ্যার পরে মশার উৎপাত কয়েক গুণ বেড়ে যায়। মশা নিধনে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো দৃশ্যমান পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। ফলে দিন দিন মশার উপদ্রব বেড়েই চলছে। এতে মশাবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আতঙ্কে রয়েছে শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের সবগুলো আবাসিক হলের পাশের ড্রেনেজ ব্যবস্থার অবস্থা অত্যন্ত নাজুক। যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ রয়েছে। ক্যাম্পাস ও হলের আশপাশের ঝোপঝাড় ও জঙ্গল থাকা, ড্রেন নিয়মিত পরিষ্কার না করায় মশার উপদ্রব বাড়ছে।

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে মাস্টারদা সূর্য সেন হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ফয়সাল আলম বলেন, ‘বারবার আমাদের পক্ষ থেকে প্রশাসনকে বলা হলেও এখনো মশা নিধনের কোনো ওষুধ স্প্রে করেনি। কয়েলেও কাজ হচ্ছে না। উল্টো কয়েলের ধোঁয়া আরো যন্ত্রণা দেয়। মশার উৎপাতের ফলে দিনের বেলায়ও আমাদের মশারি টানিয়ে বই পড়তে হচ্ছে।’

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মশা নিধনের জন্য ওষুধ প্রয়োগ না করায় মশার উৎপাত বেড়েই চলছে। অতিরিক্ত মশার কামড়ে চিকুনগুনিয়া, ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গুসহ মশাবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আতঙ্কে আছে আবাসিক শিক্ষার্থীরা। মশা নিধনের জন্য শিক্ষার্থীরা প্রশাসনকে একাধিকবার জানালেও দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আলাওল হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক আবদুল হক বলেন, ‘মশা নিধনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট কমিটির সভায় কেন্দ্রীয়ভাবে একটি সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রক্টরের নেতৃত্বে একটি কমিটিও গঠিত হয়েছে। অল্প কিছু দিনের মধ্যেই নিধনকাজ শুরু হবে।’

এর আগে গত ২০ মার্চ মশার উপদ্রবে কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ না নেওয়ায় মাস্টারদা সূর্য সেন হলের আবাসিক ছাত্ররা হলের মূল গেটে তালা ও হল প্রভোস্টকে চার ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে প্রশাসনের আশ্বাসে এ আন্দোলন স্থগিত হয়। কিন্তু এ আশ্বাসের দুই সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও প্রশাসনের কোনো দৃশ্যমান পদক্ষেপ দেখছেন না শিক্ষার্থীরা।

 

মন্তব্য