kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

নান্দাইল উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন

স্ত্রীর পরাজয়ে চেয়ারম্যানকে হত্যাচেষ্টা শ্রমিক লীগ নেতার!

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের নান্দাইলে সদ্য সমাপ্ত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভাইস চেয়ারম্যান পদে পরাজিত হয়েছেন পৌর শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক শহীদুল ইসলাম শহীদের স্ত্রী রুমা আক্তার কলি। এ জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসনাত ভুইয়াকে দায়ী করে তাঁকে পিস্তল ঠেকিয়ে ‘হত্যার চেষ্টা’ ও তাঁর কাছে ১৫ লাখ চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে শহীদুলের বিরুদ্ধে। এই খবরে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে চেয়ারম্যানের সমর্থকরা মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে।

জানা গেছে, চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নান্দাইলে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পরাজিত হন প্রার্থী রুমা আক্তার কলি। এ জন্য রুমার স্বামী পৌর শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক শহীদুল ইসলাম শহীদ খারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসনাত ভুইয়া মিন্টুকে দায়ী করেন। তাঁর ধারণা, ওই ইউনিয়নে চেয়ারম্যানের কারণেই তাঁর স্ত্রী ভোট কম পেয়েছেন। এ অবস্থায় তিনি চেয়ারম্যান মিন্টুকে তাঁর স্ত্রীর নির্বাচনী ব্যয় ১৫ লাখ টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দিয়ে আসছিলেন বলে চেয়ারম্যান অভিযোগ করেন। 

চেয়ারম্যান মিন্টু অভিযোগ করেন, গত বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তিনি কাজ সেরে নিজের ব্যক্তিগত গাড়িযোগে নিজ এলাকায় ফিরছিলেন। এ সময় নান্দাইল পাইলট বালিকা বিদ্যালয়ের পাশে নরসুন্দা নদীর ওপর ব্রিজের কাছে আসতেই তিন-চারজনের একটি দল তাঁর গাড়ি রোধ করে। পরে শ্রমিক লীগ নেতা শহীদ তাঁকে গাড়ি থেকে বের হতে বলেন। একপর্য়ায়ে তাঁকে টেনেহিঁচড়ে বের করার ব্যর্থ চেষ্টা করে তাঁরা ব্যর্থ হন। তখন শহীদুল তাঁর পেটে পিস্তল ঠেকিয়ে ১৫ লাখ টাকা দিতে বলেন। কিন্তু চেয়ারম্যানের সঙ্গে লোকজন প্রতিহত করার চেষ্টা করলে তাদের লাঠিসোঁঠা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে মারধর করা হয়। এ বিষয়ে জানতে গতকাল অভিযুক্ত শ্রমিক লীগ নেতা শহীদুলের মোবাইল ফোন যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তাঁর মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

 

মন্তব্য