kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ

বগুড়ায় ৭০০ ও ঠাকুরগাঁওয়ে ৪০ বস্তা সরকারি চাল জব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

১৭ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে কাজলা ইউনিয়ন পরিষদের জন্য বরাদ্দ ১৭০ বস্তা ভিজিডির চাল কালোবাজারে বিক্রির সময় জব্দ করা হয়েছে। গত সোমবার রাতে স্থানীয় প্রশাসন ওই সব চাল জব্দ করে। তবে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়নি।

অভিযোগ পাওয়া গেছে, উপজেলার কাজলা ইউনিয়নের ৪৪০ জন ভিজিডি কার্ডধারী সুবিধাভোগী রয়েছেন। গত সোমবার সকালে ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ সরকার সুবিধাভোগীদের মাঝে বিতরণের জন্য উপজেলা খাদ্য গুদাম থেকে ৪৪০ বস্তা চাল উত্তোলন করেন। এর মধ্যে ১৭০ বস্তা চাল স্থানীয় দুজন ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেন। বাকি চাল কম ওজনে তালিকাভুক্তদের মাঝে বিতরণ করেন। এদিকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গত সোমবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফ আহম্মেদ অভিযান চালিয়ে পৌর এলাকার চাল ব্যবসায়ী নজীর উদ্দিন ও জয়নাল আবেদীনের গুদাম থেকে ১৭০ বস্তা চাল আটক করেন। পরে চালগুলো থানায় রাখা হয়।

তবে চাল ব্যবসায়ী নজীর উদ্দিন দাবি করেন, ‘চালগুলো কাজলা ইউনিয়ন পরিষদেরই। এগুলো বিভিন্নজন আমার কাছে বিক্রি করেছে।’

কাজলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ সরকার চাল বিক্রির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমার ইউনিয়ন পরিষদ নদীবিধ্বস্ত এলাকা। এখানকার ভিজিডির চালগুলো দুটি পয়েন্ট থেকে বিতরণ করা হয়। সুবিধাভোগীরা তাদের চাল ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করেছে। সেই দোষ আমার ওপর চাপানো হচ্ছে।’

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা নাজনীন আকতার বলেন, তদন্ত করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফ আহম্মেদ বলেন, এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁও সদরে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ ১০ টাকার এক হাজার ২০০ কেজি চালসহ শচীন্দ্র নাথ বর্মণ নামের এক আওয়ামী লীগ নেতা ও আশীষ কুমার নামের এক চাল ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাত দেড়টার দিকে উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদসংলগ্ন বোর্ড অফিস বাজার থেকে তাদের আটক করা হয়। আটক শচীন্দ্র নাথ বর্মণ স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান জানান, পুলিশ গোপন খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ব্যবসায়ী আশীষের দোকান থেকে ৪০ বস্তা বা এক হাজার ২০০ কেজি চাল জব্দ করে। সরকারি চাল গোপনে মজুদ রাখার অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা শচীন্দ্র নাথ ও চাল ব্যবসায়ী আশীষকে আটক করা হয়। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য