kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

ধামরাইয়ে আসামির মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে অপহরণ

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকার ধামরাইয়ে জামিনে থাকা হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি বিপ্লব হোসেনকে অস্ত্রধারীরা জিম্মি করে অপহরণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে পরিবারের সদস্যদের ধারণা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাঁকে ধরে নিয়ে গেছেন। পুলিশ এ বিষয়ে কোনো কিছু জানে না বলে দাবি করেছে।

অপহৃত বিপ্লব উপজেলা আমসিমুর গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে। তিনি সেনাবাহিনীর চাকরিচ্যুত সদস্য চৌহাট গ্রামের ‘পান্না হত্যা’ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি। এ মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে সাড়ে তিন বছর জেল খাটার পর গত বছরের ৭ আগস্ট জামিনে মুক্ত হন বিপ্লব (৩৮)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও অপহৃত ব্যক্তির স্বজনদের কাছ থেকে জানা গেছে, গত সোমবার দুপুর ২টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে বিপ্লব ও প্রতিবেশী কৃষক আবদুল গনি মোটরসাইকেলে করে স্থানীয় গুমগ্রাম বাজারে যাচ্ছিলেন। এ সময় তাঁরা গুমগ্রামের ভেতর সড়কের মধ্যে আড়াআড়ি করে রাখা একটি মাইক্রোবাসকে পাশ কাটিয়ে বাজারের দিকে যেতে থাকেন। এরপর তাঁদের পিছু নেয় দুটি মোটরসাইকেলে থাকা চারজন আরোহী। একপর্যায়ে তাঁদের ব্যারিকেড দিয়ে মোটরসাইকেল থেকে বিপ্লব ও গনিকে ফেলে দেয় অস্ত্রধারীরা। পরে গনিকে গুলি করে হত্যার ভয় দেখিয়ে বিপ্লবকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় তারা। এ ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

অপহরণের সময় বিপ্লবের সঙ্গে থাকা কৃষক আবদুল গনি বলেন, ‘চার আরোহী আমাদের ব্যারিকেড দিয়ে মোটরসাইকেল থেকে ফেলে দেয়। এরপর মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে বিপ্লবকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়।’

এদিকে বিপ্লবের স্ত্রী জিয়াসমীন আক্তারের দাবি, তাঁর স্বামীকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিয়ে গেছেন। ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে।

 

 

মন্তব্য