kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

‘দোকান তল্লাশি হবে, টাকার ব্যবস্থা করেন’

মাগুরা প্রতিনিধি   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘আমাদের কাছে ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ার আছে। আপনার দোকান তল্লাশি করব, টাকা-পয়সার ব্যবস্থা করেন।’ এমন কথা বলে মাগুরার শালিখা উপজেলার সিংড়া বাজারের একটি ওষুধের দোকানে তল্লাশি চালিয়ে টাকা আদায়ের চেষ্টার অভিযোগে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার দুপুরে আটক চারজন হলো শালিখার বাকলবাড়িয়া গ্রামের কল্পনা রায়, সদর উপজেলার মালন্দ গ্রামের উত্তম কুমার, মাগুরা শহরের পুরাতন বাজারের রিমি ইয়াসমিন ও নিজনান্দুয়ালী এলাকার হাসিনা বেগম।

এদিকে গতকাল বুধবার দুপুরে ওই চারজনকে মাগুরার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা বসুর আদালতে নেওয়া হয়। আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। মঙ্গলবার রাতে শালিখা থানায় করা এজাহারে ভুক্তভোগী শেখর সরকার জানিয়েছেন, ওই চারজন মঙ্গলবার দুপুরে তাঁর দোকানে গিয়ে নিজেদের মানবাধিকারকর্মী পরিচয় দেয় এবং দোকানে অবৈধ ওষুধ আছে দাবি করে তল্লাশির কথা বলে। মানবাধিকারকর্মীরা কেন দোকান তল্লাশি করবে—শেখর সরকারের এমন প্রশ্নে তারা জানায়, তাদের কাছে ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ার আছে। একপর্যায়ে তারা দোকানটি তল্লাশি করতে থাকে ও উেকাচ বাবদ টাকার ব্যবস্থা করতে বলে। তখন শেখর সরকার সিংড়া বাজারসংলগ্ন স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে খবর দেন। পুলিশ এসে তাদের ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ারসহ পরিচয়পত্র ও অন্য কাগজপত্র দেখাতে বলে। কিন্তু তারা এসব দেখাতে পারেনি।

মন্তব্য