kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

তদন্তদলের প্রতিবেদন

কামারখন্দ মুক্তিযোদ্ধা বাসস্থান প্রকল্পের তালিকা অবৈধ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৩ মে, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার ভূমিহীন ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাসস্থান নির্মাণ প্রকল্পের জন্য তৈরি তালিকা অবৈধ হিসেবে তা বাতিলের সুপারিশ করা হয়েছে। এ উপজেলা সংসদের আওতায় তিনজন মুক্তিযোদ্ধাকে অসচ্ছল হিসেবে বাসগৃহ বরাদ্দের সুপারিশ করা হয়েছিল। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্তদল প্রতিবেদনে এ সুপারিশ করে। গত বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট লিখিতভাবে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন। প্রতিবেদনে ভবিষ্যতে এ ধরনের ভুয়া সুপারিশের ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও বলা হয়েছে।

তদন্তের লিখিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত ১৮ মার্চ কামারখন্দ উপজেলা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার গাজী মো. শাহাদত হোসেন ফিরোজীসহ ২২ জন মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে এক অভিযোগ দায়ের করেন। লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতায় ভূমিহীন ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাসস্থান নির্মাণের জন্য প্রতি উপজেলা থেকে নাম প্রস্তাবের আহ্বান জানানো হয়। কামারখন্দ উপজেলা কমান্ডার গাজী আমিনুল ইসলাম তিনজন মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করেন। তাঁর তালিকায় উপজেলার মধ্য ভদ্রঘাটের এস এম এ সাত্তার, বাগবাড়ী গ্রামের আবদুল কাদের খান ও কুড়াউদয়পুর গ্রামের আবদুল খালেকের নাম স্থান পায়। কিন্তু উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে কোনো আলোচনা না করে তিনজন সচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাকে অসচ্ছল হিসেবে সুপারিশ করেন। যে কারণে অন্য মুক্তিযোদ্ধারা এ অভিযোগ দাখিল করেন।

প্রতিবেদনের সিদ্ধান্তে কামরুল হাসান বলেছেন, কামারখন্দ উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা এস এম এ সাত্তার, আবদুল কাদের ও আবদুল খালেক দুস্থ ও অসচ্ছল নন। তাঁদের তুলনায় একই উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা আফসার আলী ও আলিম উদ্দিন অসচ্ছল ও দুস্থ বলে প্রতীয়মান হয়েছে। তালিকা প্রণয়নের সময় যাঁরা বাছাই কাজে নিয়োজিত ছিলেন, তাঁরা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করেননি।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ কামরুল হাসান মতামতে জানান, বাছাই প্রক্রিয়াটি বাতিল করে সম্পূর্ণ নতুনভাবে এ প্রকল্পের জন্য সঠিক অসচ্ছল ও দুস্থ মুক্তিযোদ্ধার তালিকা তৈরি করা যেতে পারে।

 

মন্তব্য