kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

খোয়াই নদীর তীর রক্ষা বাঁধ সংস্কারে অনিয়মের অভিযোগ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৩ মে, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খোয়াই নদীর তীর রক্ষা বাঁধ সংস্কারে অনিয়মের অভিযোগ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার বাল্লা সীমান্তে খোয়াই নদীর বাঁধ নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সংস্কার করায় এর স্থায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। ছবি : কালের কণ্ঠ

চার বছর বন্ধ থাকার পর গত ৪ মে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের বাল্লা সীমান্তে খোয়াই নদীর বাঁধ সংস্কার কাজ শুরু হয়। কিন্তু সংস্কারের কাজে দুর্নীতি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাইট অফিসারকে ম্যানেজ করে ঠিকাদার পুরাতন সিসি ব্লক ও বে-নম্বরী ইটের সুরকি দিয়ে কাজ করছে। এ বিষয়ে অভিযোগ করেও কোনো সমাধান পাচ্ছেন না এলাকাবাসী। সাইট অফিসারের সার্বক্ষণিক পাহারায় এ দুর্নীতি চলছে বলেও জানান তাঁরা।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার বাল্লা সীমান্তের ১৯৬৪ নম্বর মেইন পিলারে ৭ এস পিলারের কাছে হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড নদীর তীর রক্ষায় ৩৮ মিটার এলাকায় সিসি ব্লক দেওয়ার প্রকল্প গ্রহণ করে। প্রকৃত ঠিকাদারের কাছ থেকে কাজটি কিনে নেয় স্থানীয় রুবেল নামের এক ব্যক্তি।

তিনি গত বছর সরকারের টাকায় নির্মিত পুরনো সিসি ব্লক ও তার নিজের ইটভাটার নিম্নমানের ইটের সুরকি দিয়ে কাজ করছেন। বর্তমানে যেখানে সিসি ব্লক ফেলা হচ্ছে সেখানে বিগত সময়ে এক কোটি টাকা ব্যয়ে আরো একবার পাথর সলিং করা হয়েছিল। এদিকে কাজটি শেষ না হতেই একই এলাকার ১৯৬৫ নম্বর মেইন পিলারের কাছে ৮০ মিটার এলাকাজুড়ে তীর সংরক্ষণ প্রকল্পেরও স্থগিত হওয়া কাজটিও শুরু করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ সাহিদুল আলম জানান, চার বছর আগে ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে খোয়াই নদীর ১১৮ মিটার বাঁধ সংস্কারের কাজ শুরু হলেও ভারতের বাধার মুখে তা শেষ হয়নি। পরে দুই দেশের সমঝোতা হওয়ায় কাজ শুরু হয়। কাজ নিম্নমানের হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ কাজ বিজিবি ও পানি উন্নয়ন বোর্ড মনিটর করছে। তাই নিম্নমানের হওয়ার সুযোগ নেই। দীর্ঘদিন কাজটি বন্ধ ছিল। এখনো ফান্ড আসেনি। আগে কাজটি হওয়া জরুরি।

 

মন্তব্য