kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

চিনে ফেলায় খুন করা হয় শিশু হিমেলকে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

২৪ এপ্রিল, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার চিনাইর উত্তর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র হিমেল শিকদারকে (৮) মুক্তিপণের জন্য অপহরণ করা হয়েছিল। আর হিমেল অপহরণকারীদের চিনে ফেলায় শ্বাসরোধে তাকে হত্যা করা হয়।

হিমেল হত্যাকাণ্ডে জড়িত চিনাইর গ্রামের মো. মন্নার ছেলে মো. আব্বাস উদ্দিন (১৮) ও হুমায়ুন চৌধুরীর ছেলে জয়নাল চৌধুরী (২০) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এসব তথ্য জানিয়েছে। গত মঙ্গলবার ওই দুজন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সিরাজাম মুনীরার খাসকামরায় এ জবানবন্দি দেন। গত বুধবার সন্ধ্যায় আদালত সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার নিখোঁজ হয় চিনাইর গ্রামের লিল মিয়া শিকদারের ছেলে হিমেল শিকদার। এ বিষয়ে এলাকায় মাইকে প্রচারও করা হয়। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়। এরই সূত্র ধরে পুলিশ জবানবন্দি দেওয়া দুজনসহ বিজেশ্বর গ্রামের আছমত আলীর ছেলে মো. মহসীনকে (৩৫) গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতদের দেওয়া তথ্য মতে ওই দিনই চানপুর গ্রামের একটি বিল থেকে হিমেলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দেওয়া জবানবন্দিতে আব্বাস উদ্দিন ও জয়নাল চৌধুরী জানায়, পরিবারের কাছ থেকে টাকা আদায়ের জন্য স্কুল থেকে হিমেলকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয়। একপর্যায়ে ঘটনার দিনই হিমেল হারানোর মাইকিং শোনে তারা। রাতে হিমেল বাড়ি যেতে চায়। কিন্তু বাড়ি যেতে দিলে হিমেল তাদের (অপহরণকারী) নাম বলে দিতে পারে- এমন আশঙ্কা থেকে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়।

 

মন্তব্য