kalerkantho

সিলেটে কৃষক খুন

তিন স্থানে উদ্ধার তিন লাশ

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২৪ এপ্রিল, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোম্পানীগঞ্জে প্রতিপক্ষের হাতে খুন হয়েছেন কৃষক। এ ছাড়া বাকেরগঞ্জে বিধবা এবং ভাণ্ডারিয়া ও বিজয়নগরে দুই চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

সিলেট : কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার উত্তর রাজনগর গ্রামে গত বুধবার বিকেলে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ইলিয়াস মিয়া নামের এক কৃষক নিহত হয়েছেন। এ সময় তাঁর ভাই শফিক মিয়া ও রফিক মিয়া এবং ভাতিজা ফয়সাল আহত হয়। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত মামলা হয়নি বলে জানিয়েছেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ।

বরিশাল : বাকেরগঞ্জ উপজেলার দিয়াতলী গ্রামের একটি বাগান থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে তাছলিমা বেগম নামের এক বিধবার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের এক স্বজন অভিযোগ করেন, জমি নিয়ে কলসকাঠি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শওকত হোসেন হাওলাদারের সঙ্গে ওই নারীর বিরোধ চলছিল। কিছুদিন আগে ওই চেয়ারম্যানের ছেলে খোকন তাঁকে দেখে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছিল। বাগানটি ওই চেয়ারম্যানের বলে জানা গেছে। বাকেরগঞ্জ থানার ওসি মো. হানিফ বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাছলিমাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে বাঁশের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি আরো নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পিরোজপুর (আঞ্চলিক) : নিখোঁজ হওয়ার তিন দিন পর গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার তেলিখালী গ্রামের একটি সুপারি বাগান থেকে রবিউল সিকদার নামের এক রিকশাচালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। এ ঘটনায় ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : বিজয়নগর উপজেলার ভুল্লা গ্রামের একটি পুকুর থেকে গতকাল সকালে মো. সোহরাব চৌধুরী নামের এক সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিজয়নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মেজবাহ উদ্দিন জানান, ধারণা করা হচ্ছে, অটোরিকশা চুরি করতে তাঁকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

 

মন্তব্য