kalerkantho

বুধবার । ২ আষাঢ় ১৪২৮। ১৬ জুন ২০২১। ৪ জিলকদ ১৪৪২

‘ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু’র মুক্তি উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রে আনন্দ আয়োজন

বিশেষ প্রতিনিধি, নিউ ইয়র্ক   

৯ জুন, ২০২১ ১৬:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু’র মুক্তি উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রে আনন্দ আয়োজন

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার ‘এইচডি বাংলা’ ও যুক্তরাষ্ট্র  বঙ্গবন্ধু পরিষদের যৌথ উদ্যোগে নির্মিত সঙ্গীত-চিত্র "ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু" -এর শুভ মুক্তি উপলক্ষ্যে বিশেষ একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রবিবার জুম কনফারেন্সের মাধ্যমে শুভ মুক্তির এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশের কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ড. নুরুন নবীর সভাপতিত্বে অনেক বিশিষ্টজন বক্তব্য রাখেন।

কলকাতার স্বনামধন্য গীতিকার শুভদ্বীপ চক্রবর্তীর কথায় এবং সঙ্গীত পরিচালক চিরন্তন ব্যানার্জির সুরে "ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু" সঙ্গীত চিত্রটি নির্মিত হয়েছে। বাংলাদেশ, ভারত এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পীরা এতে অংশ নেন।

"ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু" সঙ্গীত চিত্রটি দেখে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী ডঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, "বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এই অসাধারণ গানটি দেখে আমি সত্যি আবেগ আপ্লুত। এই গানের যে সুর তা যেকোন মানুষের মনকে আলোড়িত করবে। গানের কথায় বলা হয়েছে-প্রাণের বন্ধু, মানের বন্ধু, বঙ্গবন্ধু তুমি। সত্যি অসাধারণ এই কথাগুলো। আমার মনকে ছুঁয়ে গেছে"। তিনি যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও এইচডি বাংলা কে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, 'এই সঙ্গীত চিত্রটি আগামী প্রজন্মের জন্যে অসাধারণ একটি উদ্যোগ হয়ে থাকবে"।  

অনুষ্ঠানের সভাপতি ড. নুরুন নবী বলেন,  "প্রবাসের মাটিতে আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতা থাকা সত্বেও মুজিব শতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে  জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ‘ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু’ সঙ্গীত চিত্রটি বঙ্গবন্ধুর প্রতি আমাদের পক্ষ থেকে এক নতুন ভিন্নধর্মী অনন্য উপহার ও শ্রদ্ধাঞ্জলি। আমরা অনেক গর্বিত বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এই সঙ্গীত চিত্রটি সম্পন্ন করতে পেরেছি"।

"ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু" অন্যতম উদ্যোক্তা এইচডি বাংলার কর্ণধার সাইফুর রহমান ওসমানী জিতু তার বক্তব্যে  বলেন, " শিল্পী ও কলাকুশলীদের কঠোর পরিশ্রম এবং যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও সংগঠনের বিভিন্ন শাখার পৃষ্ঠপোষকতার ফসল জাতির জনককে নিয়ে এই সঙ্গীত চিত্রের পূর্ণ রূপ"। তিনি সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন নিউ ইয়র্কের কনসাল জেনারেল ডাঃ সাদিয়া ফয়জুন্নেসা, লস এঞ্জেলেসের কনসাল জেনারেল তারেক মোহাম্মদ, বাংলাদেশ থেকে বাংলা একাডেমীর উপপরিচালক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক ডঃ আমিনুর রহমান সুলতান,  যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ডঃ সিদ্দিকুর রহমান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান  ফরাসত আলী,  ফোবানা চেয়ারম্যান ও ইউএসএ কমিটি ফর সেকুলার এন্ড ডেমোক্রেটিক বাংলাদেশ-এর সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী, যুক্তরাজ্য থেকে সংযুক্ত ইউকে বিডি টিভির কর্ণধার মুকিস মন্সুর, বিটিভির সাবেক মহাপরিচালক বেলাল বেগ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি নিউ ইয়র্ক চ্যাপ্টারের সভাপতি ফাহিম রেজা নূর, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের উপদেষ্টা এম এ সালাম, কানাডা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আমিন মিয়াঁ, সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রবীণ রাজিনিতিবিদ সুলতান শরিফসহ অনেকে। যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক  রাফায়েত চৌধুরী সংযুক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বীকৃতি বড়ুয়া।



সাতদিনের সেরা