kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৭ রমজান ১৪৪২

ক্লাব ৯৪ ইউএসএ'র বর্ণাঢ্য বৈশাখ বরণ

বিশেষ প্রতিনিধি, নিউ ইয়র্ক   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ১৫:২৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ক্লাব ৯৪ ইউএসএ'র বর্ণাঢ্য বৈশাখ বরণ

নিউ ইয়র্কের প্রকৃতিতে পরিবর্তনের ছোঁয়া। গাছে গাছে নয়নজুড়ানো চেরি ফুলের সমাহার। ফুটছে টিউলিপ আর নতুন পাতায় ভরে উঠছে শাখাগুলো। করোনা মহামারীর কারণে থমকে যাওয়া জীবনে কিছুটা যেন লেগেছে প্রাণের স্পন্দন। সেই স্পন্দনের মহিমায় এবার বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নিচ্ছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

তারই অংশ হিসেবে বাংলা নতুন বছর ১৪২৮ সালকে বরণ করে নিতে বর্ণাঢ্য এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ক্লাব ৯৪ ইউএসএ। স্থানীয় সময় শনিবার জ্যামাইকার পানসি পার্টি সেন্টারে দিনভর চলে আনন্দ আয়োজন। বাঙালির চিরায়ত সংস্কৃতির ধারার সব উপকরণই ছিল প্রবাসীদের এমন আয়োজনে।

১৯৯৪ সালে যারা বাংলাদেশে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে এসএসসি পাস করেছে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী সেইসব বন্ধুদের এই সংগঠনে এদিন প্রাণে প্রাণে সাড়া পড়ে গিয়েছিল। নানা প্রান্ত থেকে ছুটে আসে তারা। করোনা সতর্কীকরণের মধ্যেই এই আয়োজনে ছিল নাচ, গান, পুঁথিপাঠ, আবৃত্তি। প্রবাসে বেড়ে ওঠা শিশু কিশোরদেরকে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয় বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির বিভিন্ন বিষয়ের সঙ্গে। এসময় ক্যুইজে অংশগ্রহণকারীদের পুরস্কৃত করা হয়।   
 
যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠানটি। এরপরই ছিল সমবেত কণ্ঠে "এসো হে বৈশাখ" গানটি। সুতিপার কণ্ঠে "পুরানো সেই দিনের কথা" নিতুর কণ্ঠে "আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম" সহ কয়েকটি গান ছিল অসাধারণ। ইশতিয়াক আহমেদ একটু বিরহ ঢেলে দিয়ে আবৃত্তি করলেন "কেউ কথা রাখেনি"। আর প্রবাসী জীবনের সুখ দু:খ নিয়ে কবি ধীমান নাথের পুঁথিপাঠে ছিল ভীন্ন এক ব্যঞ্জণা। সঙ্গীত পরিবেশন করেন শান্তনু, শম্পা, স্বপ্না, মঞ্জু, শামীমা এবং হৃদিতা।অনুষ্ঠানটি চমৎকারভাবে সঞ্চালনা করেন পারভীন শিমু। বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে যুক্ত ছিলেন লেখক ও সাংবাদিক শামীম আল আমিন।

ক্লাব ৯৪ এর ইউএসএ'র উদ্যোক্তাদের মধ্যে হাবিব উদ্দিন আহমেদ, মোহাম্মদ রাজ্জাক, শাহরিন লায়লা, ইমরুল এইচ চৌধুরী, ফেরদৌস আলী মাহবুব, মোহাম্মদ মনজুরুল কাদের, তাজরিন ফাতেমা, শাওন আহনাফ, আনোয়ার শামীম, সুমন সাহা, মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান এবং  সালাউদ্দিন বাপ্পীসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।    

শিশুদের মধ্যে ইয়ামানা, রূপন্তি সাহা, আরিয়া, আবরিয়ানা আলীম, আরাদ আলিম, মাইশা মুমতাজ, অন্তরা, সাহিত্যের পরিবেশনা ছিল চমৎকার। শিল্পী তারিক জুলফিকারের দৃষ্টিনন্দন মঞ্চসজ্জা সবার নজর কেড়ে নেয়। পুরানো হতাশা, করোনার ভীতি কাটিয়ে নতুন বছর সবার জীবনে সুখ আর স্বাচ্ছন্দ্য নিয়ে আসবে এমন বক্তব্যই উঠে আসে সবার কথায়।



সাতদিনের সেরা