kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

৭ই মার্চ শুরু

নিউ ইয়র্কে বঙ্গবন্ধুর ওপর দুর্লভ আলোকচিত্র প্রদর্শনী

বিশেষ প্রতিনিধি, নিউ ইয়র্ক   

৫ মার্চ, ২০২১ ১৫:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিউ ইয়র্কে বঙ্গবন্ধুর ওপর দুর্লভ আলোকচিত্র প্রদর্শনী

১৯৪৭ সালে কলকাতায় মহাত্মা গান্ধী ও হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর সাথে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিজুর রহমান। ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারী পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে লন্ডন থেকে ভারতের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেওয়ার সময় বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী এডওয়ার্ড হিথ নিজ হাতে গাড়ীর দরজা খুলে দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে বিদায় জানালেন। জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে বঙ্গবন্ধু এসেছিলেন আমেরিকায়। ১৯৭৪ সালে ওয়াশিংটনে বাঙালিদের দেয়া অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন জাতির পিতা। এমন অনেক দুর্লভ আলোকচিত্র এবার দেখতে পাবেন যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ থেকে নিউ ইয়র্কে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর ওপর দুর্লভ আলোকচিত্রের এক প্রদর্শনী।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে মাসব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে, জ্যাকসন হাইটসের আইএসপি ভবনের দ্বিতীয় তলায়। ঠিকানা হচ্ছে- 37-07 74th Street, Jackson Heights, NY 11372.    

আমেরিকায় বেড়ে ওঠা শিশু-কিশোরদের মাঝে জাতির জনককে তুলে ধরার জন্য মুক্তধারা নিউ ইয়র্ক এই প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। অবিসংবিদিত এই মহান নেতার ১০০ দুর্লভ ছবি এই প্রদর্শনীতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ৩০ মার্চ পর্যন্ত এই প্রদর্শনী চলবে। সোম থেকে শুক্রবার, দুপুর ৩টা থেকে রাত ৮টা এবং প্রতি শনি-রবিবার সকাল ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত প্রদর্শনী চলবে। আগেই অ্যাপয়েনমেন্টের মাধ্যমে প্রতি ১০ জন করে গ্রুপ করে গ্যালারীতে দর্শকদের প্রবেশ করানো হবে বলে মুক্তধারা নিউ ইয়র্ক সূত্রে জানা গেছে। এজন্যে 347-656-5106, 516-574-2985, 929-231-8457 নম্বরগুলোয় যোগাযোগ করা যাবে।   
 
মুক্তধারার প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বজিত সাহা বলেন, "এটি একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত। এর আগে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বর্হিবিশ্বে এমন ব্যতিক্রম আয়োজন কখনোই হয়নি। আমরা বিভিন্ন সূত্র থেকে অনেক কষ্ট করে জাতির পিতার দুর্লভ সব ছবি সংগ্রহ করেছি। প্রতিটি ছবিতে বাংলা ও ইংরেজীতে ক্যাপশন রয়েছে।  এবার প্রবাসীরা সেই ছবিগুলো দেখতে পাবেন। বিশেষ করে আমেরিকায় বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের কাছে আমরা বঙ্গবন্ধুকে ভীন্ন আঙ্গিকে তুলে ধরতে পারবো।”

প্রদর্শনীর সমন্বয়ক হলেন মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ জিয়াউদ্দীন আহমেদ ও মুক্তধারার প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বজিত সাহা। প্রদর্শনীর কিউরেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ওবায়দুল্লাহ মামুন। প্রযুক্তি বিষয়ে মুরাদ আকাশ ও  ব্যবস্থাপনায় আছেন শুভ রায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা