kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৯ চৈত্র ১৪২৬। ২ এপ্রিল ২০২০। ৭ শাবান ১৪৪১

‘চীনে ভাইরাস পরীক্ষার আগে দেশে ফিরতে চাই না’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ জানুয়ারি, ২০২০ ১৯:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘চীনে ভাইরাস পরীক্ষার আগে দেশে ফিরতে চাই না’

ইশান ইসলামের ফেসবুক টাইমলাইনের প্রোফাইল ছবি থেকে সংগৃহীত

করোনাভাইরাস কবলিত চীনের উহান প্রদেশ থেকে ইশান ইসলাম নামের এক বাংলাদেশি কালেরকণ্ঠকে পাঠানো একটি মেসেজে এই দাবি জানিয়েছেন। ফেসবুক ইনবক্সের মাধ্যমে তিনি কালেরকণ্ঠকে ওই মেসেজটি করেছেন। যেখানে তিনি কর্তৃপক্ষের উদ্দেশ্যে এই সতর্কতামূলক বার্তাটি দিতে চেয়েছেন। কালেরকন্ঠকে পাঠানো তার বার্তাটি হুবহু তুলে ধরা হলো...

“আসসালামু আলাইকুম।
এই মুহূর্তে আমরা যারা উহানে আছি নিঃসন্দেহে সবারই করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হুমকি রয়েছে। নিরাপদে দেশে ফিরে যাওয়ার ব্যপারে কারও কোন মতানৈক্য নেই। তবে এসময়ে দেশে ফিরে যাওয়ার পূর্বে নিম্নোক্ত বিষয় গুলো অবশ্যই অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবেঃ

১) চায়না থেকে বের হওয়ার পূর্বেই ১০০% নিশ্চিত হওয়া আমরা কেউ করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত নই।

২) বিশেষজ্ঞদের মতানুসারে দেশে সবাইকে পুনরায় পরীক্ষা করা। পরীক্ষার প্রয়োজনে যদি আমাদের বিমানবন্দরে ২, ৫, ৭, ১০, ১৪ দিনও থাকতে বলা হয় তাহলে ধৈর্য সহকারে সেখানে থাকা। তবে দেশে ফেরার পূর্বে অবশ্যই কতৃপক্ষকে এটা নিশ্চিত করতে হবে তারা আমাদের থাকার জন্য সুব্যবস্থা করবেন এবং এজন্য আমরা অবশ্যই টাকা প্রদান করব। এই পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে কোন ভাবেই আগে বাড়ি পৌঁছাতে কোন রকম তদবির করা যাবেনা। কারণ, অস্ট্রেলিয়াতে একজন আক্রান্ত ব্যক্তি পাওয়া গেছে। উহান থেকে যাওয়া ঔ যাত্রী এ ভাইরাসে আক্রান্ত ছিল, কিন্তু  বিমানবন্দরে স্ক্রিনিংয়ের সময় ধরা পড়েনি। অস্ট্রেলিয়ার মত বিমানবন্দরে যদি তাৎক্ষণিক ভাবে ধরতে না পারে তাহলে আমাদের বিমানবন্দরে কি হবে এটা ভাবার বিষয়।

আরও একটা বিষয় মনে রাখতে হবে শুধু জোসের সাথে ভাবলে হবেনা হুসের সাথে ভেবে চিন্তে কাজ করতে হবে এবং সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

মুসলমান হিসেবে আল্লাহর উপর পূর্ণ আস্থা রাখতে হবে।”

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা