kalerkantho

সোমবার । ২৬ আগস্ট ২০১৯। ১১ ভাদ্র ১৪২৬। ২৪ জিলহজ ১৪৪০

ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুলের অমর একুশে অনুষ্ঠান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ মার্চ, ২০১৯ ০০:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুলের অমর একুশে অনুষ্ঠান

ছবি : কালের কণ্ঠ

উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন শহরে ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে পালিত হয়েছে ভাষা শহীদদের স্মরণে অমর একুশের অনুষ্ঠান। রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি সংলগ্ন ম্যারিল্যান্ডে এবারের একুশে আয়োজন করেছিল ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুল। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রবিবার এলিকট সিটির রজার কারটার কম্যুনিটি সেন্টারে আয়োজিত হয়েছিল এই স্মরণ সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের এই উদযাপনে  ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুলের বিভিন্ন বয়সের শিশু-কিশোররা পরিবেশন করে বাংলা ছড়া, কবিতা ও গান। বাংলা স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের বাবা-মা'রাও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মাধ্যমে প্রকাশ করে বাংলার ভাষার, বাংলা সাহিত্যের প্রতি, বাংলাদেশের প্রতি তাদের ভালোবাসা। এ ছাড়াও এই অনুষ্ঠানে অতিথি শিল্পী হিসেবে একটি গীতিনাট্য পরিবেশন করে বাল্টিমোর ভিত্তিক শিল্পীগোষ্ঠী-উদয়ন।

ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুলের এই একুশের অনুষ্ঠানের অনন্য একটি অংশ ছিল ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসভিত্তিক নাটিকা। বাংলা স্কুলের ছেলে-মেয়েরা অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে তুলে এনেছিল ১৯৪৭ থেকে ১৯৫২ ভাষা আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তমদ্দুন মজলিস থেকে শুরু করে, গণপরিষদে ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের ভূমিকা, জিন্নাহ’র হঠকারিতা, খাজা নাজিমুদ্দীনের বিশ্বাসঘাতকতা, আর রফিক, জব্বার, বরকতের সাহসী আত্মত্যাগ অসাধারণ দ্যোতোনায় উঠে এসেছে এই নাটিকায়। আপ্লুত করেছে দর্শক শ্রোতাদের।

বাল্টিমোরবাসী সৌখিন বাংলাদেশিদের পাশাপাশি এই আয়োজন দেখতে এসেছিলেন পাশের অঙ্গরাজ্য ‌ওয়াশিংটন ডিসি আর ভার্জিনিয়া থেকে বাংলাদেশি প্রবাসীরা। এসেছিলেন ভয়েস অফ আমেরিকার সরকার কবীর উদ্দীন, আনিস আহমেদ এবং অন্যান্যরা। এদেশে জন্ম নেওয়া এবং বেড়ে ওঠা ছেলেমেয়েদের আগ্রহ, উদ্দীপনা আর উৎসাহ তাদের সবাইকে মুগ্ধ করেছে।

উল্লেখ্য, যে ২০১০ সালে বাল্টিমোরবাসী কিছু একাডেমিক, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদের উদ্যোগে যাত্রা শুরু করে ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুল। বাংলা ভাষা বলতে, পড়তে, ও লিখতে শেখার পাশাপাশি এই স্কুলের কারিকুলামে আছে বাঙালি সংস্কৃতির মূল্যবোধ শিক্ষা ও বাংলা ভাষা আর বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতির সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন। এই স্কুলের পুরো নাম হচ্ছে ম্যারিল্যান্ড বাংলা ইসলামিক স্কুল। এখানে বাংলা ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতির সঙ্গে ইসলামী মূল্যবোধ। 6631 Johnnycake Road, Baltimore, MD 21244 ঠিকানায় ‘ইসলামকি সোসাইটি অফ বাল্টিমোরের’ (ISB) ক্যাম্পাসে প্রতি রবিবার দুপুর আড়াইটা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত এখানে বাংলা এবং ইসলামিক শিক্ষার ক্লাস করানো হয়। এই বাংলা স্কুলের রয়েছে ভীষণ ডেডিকেটেড কিছু শিক্ষিকারা।

আয়োজকরা শিক্ষার উপকরণ এবং স্কুল চলাকালীন সময়ে ফ্রি স্ন্যাক্স-এর ব্যবস্থা করেন শিক্ষার্থীদের জন্য। ম্যারিল্যান্ড বাংলা স্কুল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন ছাড়াও, বাংলা নববর্ষ, বার্ষিক পিকনিক এবং স্টুডেন্ট রিকোগনিশনসহ নানাবিধ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে। নতুন প্রজন্মের কাছে নিজেদের ভাষা, ঐতিহ্য, আর ইতিহাসকে তুলে ধরার প্রয়াসেই আয়োজকরা এই স্কুল পরিচালনা করে আসছেন। ভবিষ্যতে এই স্কুলকে ভিত্তি করে বাল্টিমোরভিত্তিক একটি বাংলা ভাষা, কৃষ্টি ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র গড়ে উঠবে বলে আশা করেন এর উদ্যোক্তরা। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা