kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

নিউইয়র্কে 'বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে' ২৫ সেপ্টেম্বর

বিশেষ প্রতিনিধি, নিউইয়র্ক   

১৪ মার্চ, ২০১৯ ২০:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিউইয়র্কে 'বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে' ২৫ সেপ্টেম্বর

এখন থেকে প্রতি বছর ২৫ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক স্টেটে ‘বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে’ হিসেবে পালিত হবে। সম্প্রতি নিউইয়র্কের রাজধানী আলবেনিতে অনুষ্ঠিত সিনেট অধিবেশনে ‘বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে’ বিলটি উত্থাপিত হলে সর্বসন্মতিক্রমে তা অনুমোদন পায়। সেই সঙ্গে ২৫ সেপ্টেম্বরকে স্টেট ক্যালেন্ডারের অন্তর্ভুক্ত করা হয়, যার রেজ্যুলেশন নম্বর হচ্ছে ৩২২। 

সিনেট রেজ্যুলেশনে উল্লেখ করা হয়েছে, যেহেতু ১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের স্থপতি শেখ মুজিবুর রহমান জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে প্রথমবারের মতো বাংলায় ভাষণ দিয়েছিলেন, সেজন্য সেই দিনটি নিউইয়র্কের বাংলাদেশি অভিবাসীদের কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। নিউইয়র্কের মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের বিশ্বজিত সাহা এই দিনটিকে 'বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে' ঘোষণার জন্য প্রস্তাবটি তুলেছিলেন। সেই প্রস্তাবে তিনি জাতিসংঘের অধিবেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলায় দেয়া ঐতিহাসিক সেই ভাষণের কথা উল্লেখ করেছিলেন। 

বিশ্বজিত সাহা জানিয়েছেন, 'দিনটিকে 'বাংলাদেশি ইমিগ্রান্ট ডে' ঘোষণার প্রস্তাবটি ২০১৬ সালের ১২ ডিসেম্বর সিনেটর টবি অ্যান স্ট্যাভিসকির কাছে আবেদন আকারে দেয়া হয়। যদিও ২০১৭ সালের জানুযারি মাসে সিনেট অধিবেশনে প্রস্তাবটি উত্থাপিত হলে রিপাবলিকান সিনেটরদের বিরোধিতার মুখে বাতিল হয়ে যায়। এরপর ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি সিনেটর হোজে প্যারাল্টার সঙ্গে দেখা করে বিষয়টি তাকে জানান হয়। পরের বছর হোজে পেরাল্টা একটি প্রকলেমেশনে ২৫ সেপ্টেম্বরকে ’বাংলাদেশি ইমিগ্র্যান্টস ডে’ হিসাবে ঘোষণা করেন। সবশেষ টবি অ্যান স্ট্যাভিসকির প্রচেষ্টাতেই আবারো সিনেট অধিবেশনে প্রস্তাবটি তোলা হয় এবং শেষ পর্যন্ত অনুমোদিত হয়। নটি পালিত হবে। 

জানা গেছে, রেজ্যুলেশনটি পাশের পর গত ১২ মার্চ নিউইয়র্ক স্টেট গভর্ণর এন্ড্রু ক্যুমো ও মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বজিত সাহার চিঠি পাঠিয়ে তা জানানো হয়েছে। ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকীর ঠিক আগ মুহূর্তে এমন সংবাদকে বড় একটি পাওয়া বলে উল্লেখ করে বিশ্বজিত সাহা। সেই সঙ্গে স্টেট অ্যাসেম্বলির সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা