kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১            

ব্রিটেনে অমুসলিমদের জন্য খুলে দেয়া হলো মসজিদ

জুয়েল রাজ, লন্ডন থেকে   

৪ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৪৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ব্রিটেনে অমুসলিমদের জন্য খুলে দেয়া হলো মসজিদ

মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেনের আয়োজনে পঞ্চম বারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ভিজিট মাই মস্ক কার্যক্রম। অমুসলিমদের জন্য খুলে দেয়া হয় ব্রিটেনের আড়াইশো মসজিদের দুয়ার। রবিবার দেদশটির আড়াইশ মসজিদ অমুসলিম নারী পুরুষ ও শিশু কিশোরদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে। 

মূলত ব্রিটেনজুড়ে মসজিদ সম্পর্কিত ভ্রান্ত ধারণা দূর করতেই প্রতিবছর এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। আগত অমুসিলমরা মসজিদগুলো ঘুরে দেখেন। মসজিদ যে উপসনার স্থান, এখানে গোপনীয় কোনো কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয় না- এ ধরনেরই একটি স্বচ্ছ ধারণা নিয়ে ফিরে যান তারা। 

ভিজিট মাই মস্ক পরিদর্শনে লন্ডনের ইস্ট লন্ডন মসজিদে এসেছিলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এম পি রুশনারা আলী। বিগত পাঁচ বছর ধরে ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচি আয়োজনের জন্য মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এই কর্মসূচির মাধ্যমে যুক্তরাজ্যসহ গোটা বিশ্ব দেখতে পারবে যে ইসলাম সবসময়ই শান্তি ও ঐক্যের ধর্ম। কিছু মানুষ আমাদের মধ্যে বিভক্তি সৃষ্টি করতে চায়, আমাদের ধর্মকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করে। সুতরাং আমরা যে যে ধর্মে বিশ্বাসী হইনা কেন আমাদের উচিত দেশব্যাপী শান্তির বাণী ছড়িয়ে দেয়া। এটা ধর্মে বিশ্বাসী অবিশ্বাসী সকলেরই দায়িত্ব। ইসলাম সম্পর্কে মিডিয়ার নেতিবাচক প্রচারণা বন্ধে সারাদেশে মসজিদ ও ইসলামি কমিউনিটির কার্যক্রম ব্যাপকভাবে তুলে ধরতে হবে।

মেয়র জন বিগস বলেন, টাওয়ার হ্যামলেটসে অধিকসংখ্যক মুসলিমের বসবাস। কাউন্সিল কেবিনেটেও অধিকসংখ্যক মুসলিম কাউন্সিলার নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তিনি সকলকে সাথে নিয়েই কাউন্সিলের বাসিন্দাদের জন্য কাজ করছেন। টাওয়ার হ্যামলেটসের বহুধর্মের মানুষের মধ্যে শান্তি রক্ষায় মেয়র হিসবে তিনি সবসময় সচেষ্টা আছেন। বিশেষকরে মুসলমান নারী-পুরুষের ধর্মীয় অধিকার রক্ষায় তিনি সচেষ্ট।

২০১৫ সালে মুসলিম কাউন্সিল অব বৃটেন (এমসিবি) ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচির উদ্বোধন করে। প্রথম বছরই নন-মুসলিমদের পক্ষ থেকে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যায়। প্রথম বছর যুক্তরাজ্যের ২০টি মসজিদ এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে। পরের বছর দ্বিতীয় অপেন ডে’তে অংশগ্রহণ করে ৮০টি মসজিদ।

তৃতীয়বারের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে দেড়-শতাধিক মসজিদ। চতুর্থ বছর অংশগ্রহণ করে প্রায় ২শতাধিক মসজিদ। ওই বছর প্রায় ৪০ হাজার মুসলিম ও অমুসলিম মসজিদগুলো পরিদর্শন করেন। এবার পঞ্চম ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচিতে সারাদেশে আড়াইশ মসজিদ মুসলিম-অমুসলিমদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। সারাদিন হাজার মানুষ মসজিদগুলো ঘুরে দেখেন।

ইস্ট লন্ডন মসজিদের মতো  সারাদেশেই অন্যান্য মসজিদগুলোতে  ভিন্ন ধর্মীয় নেতা,রাজনৈতিক নেতারাও মসজিদগুলো পরদর্শন করে মতবিনিময় করেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা