kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান

ধানমণ্ডিতে তিন রেস্টুরেন্ট বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এক দিন আগের ইফতারের জন্য বানানো হয়েছিল জিলাপি, টিকা। রান্না করা হয়েছিল মুরগির মাংস, গরুর মাংস। বাক্সের মধ্যে দুই-তিন পদের মিষ্টি। একটি তরকারির বাটির ওপর আরো একটি মাংসের বাটি। দেখে মনে হয় অর্ধেকটা কেউ খেয়ে বাকি অর্ধেকটা রেখে দিয়েছে। এভাবেই কয়েক পদের খাবার রাখা হয়েছে ফ্রিজের একটি অংশে। এই রান্না করা খাবারগুলো রাখা হয়েছে কাঁচা মাংসের সঙ্গে। বাসি খাবারগুলো রাখা হয়েছিল পুনরায় বিক্রির উদ্দেশ্যে।

তবে সেগুলো আর বিক্রি করতে পারেনি ক্যাফে ধানমণ্ডি নামের রেস্টুরেন্টটি। রাজধানীর ধানমণ্ডি এলাকায় গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের একটি অভিযানে রেস্টুরেন্টের এই অপকর্ম ধরা পড়ে। এ কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। অভিযানটি পরিচালনা করেন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডল ও ইন্দ্রানী রায়।

আব্দুল জব্বার মণ্ডল বলেন, ‘আমরা তাদের ফ্রিজে যে বাসি খাবারগুলো পেয়েছি সেগুলো পুনরায় বিক্রির উদ্দেশ্যে রাখা হয়েছিল। আবার রাখা হয়েছে কাঁচা মাংসের সঙ্গে, যা গুরুতর অপরাধ। শুধু ফ্রিজের মধ্যে বাসি খাবার তাই নয়, রেস্টুরেন্টের অবস্থাও যাচ্ছেতাই। চরম অস্বাস্থ্যকর অবস্থায় খাবার তৈরি করছিল প্রতিষ্ঠানটির কর্মচারীরা।’

ক্যাফে ধানমণ্ডির পাশাপাশি একই এলাকার সুচিলি রেস্টুরেন্ট ও বিয়ে বাড়ি রেস্তোরাঁকেও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রান্না করায় সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি রেস্টুরেন্টকে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

মন্তব্য