kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

সিরিয়াল দিতে দেরি

ডাক্তারের অ্যাটেনডেন্টকে পেটালেন যুবলীগ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজশাহী জেলা যুবলীগ সভাপতি আবু সালেহর বিরুদ্ধে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে হামলা ও চিকিৎসকের অ্যাটেনডেন্টকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। নিজের আত্মীয়ের এক সন্তানের জন্য শিশু বিশেষজ্ঞ বেলাল উদ্দিনের কাছে সিরিয়াল দিতে দেরি হওয়ায় গত মঙ্গলবার বিকেলে তিনি এ ঘটনা ঘটান। পরে ওই অ্যাটেনডেন্ট শিমুল হোসেনকে ডেকে নিয়ে নিজেদের মধ্যে সমঝোতাও করে নেন আবু সালেহ। তবে চিকিৎসকের চেম্বারে হামলা ও অ্যাটেনডেন্টকে মারধরের ঘটনায় চিকিৎসকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

শিমুল পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ডা. বেলাল উদ্দিনের অ্যাটেনডেন্ট হিসেবে কাজ করেন। চিকিৎসক বেলাল উদ্দিন প্রতিদিন বিকেলে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগী দেখেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, জেলা যুবলীগ সভাপতি আবু সালেহ গত মঙ্গলবার শিমুলকে ফোন করে চিকিৎসক বেলাল উদ্দিনের একটি সিরিয়াল দিতে বলেন। কিন্তু ওই সময় রোগীর চাপ থাকায় ওই শিশুকে চিকিৎসকের কাছে পাঠাতে দেরি হয় শিমুলের। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আবু সালেহ তাঁর কয়েকজন সহযোগী নিয়ে গিয়ে পপুলারে ঢুকে চিকিৎসক বেলাল উদ্দিনের চেম্বারের সামনে বসে থাকা অ্যাটেনডেন্ট শিমুল হোসেনের ওপর চড়াও হন। এতে প্রতিবাদ করলে যুবলীগ নেতা সালেহ শিমুলকে ধরে চড়-থাপ্পড় মারেন। আতঙ্কে চিকিৎসক বেলাল উদ্দিন তাঁর কার্যালয়ের ভেতর থেকে বন্ধ করে দেন। কিন্তু আবু সালেহ বাইরে থেকে তাঁর দরজাতেও লাথি মারতে থাকেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা