kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

শ্রমিকদের বকেয়া বেতন দাবি

ভালুকায় মহাসড়ক অবরোধ, ধাওয়া পাল্টাধাওয়া ফাঁকা গুলি

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভালুকায় বকেয়া বেতনের দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার সকালে প্রায় দেড় ঘণ্টা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে স্থানীয় লিও ফ্যাশন লিমিটেড সোয়েটার কারখানার শত শত শ্রমিক। খবর পেয়ে  পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে শ্রমিক-পুলিশ ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে পুলিশ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে ৫৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। পরে বকেয়া বেতন দেওয়ার আশ্বাসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ। এ ঘটনায় তিন পুলিশসহ অন্তত ২০ জন শ্রমিক আহত হয়েছে। শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধের ফলে দীর্ঘ সময় যান চলাচল বন্ধ থাকায় ভ্যাপসা গরমে ভোগান্তিতে পড়ে যাত্রীসাধারণ।

বকেয়া বেতনের দাবিতে গতকাল সকালে কারখানার কাজ বন্ধ রেখে বিক্ষোভ করতে থাকে উপজেলার গাদুমিয়া এলাকার লিও ফ্যাশনের কয়েক শ শ্রমিক। একপর্যায়ে শ্রমিকরা কারখানার অদূরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে হাজিরবাজার এলাকায় নেমে আসে এবং বিদ্যুতের পিলার, গাছের গুঁড়ি ফেলে মহাসড়ক অবরোধ করে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। এতে ওই স্থানের উভয় পাশে মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রথমে শ্রমিকদের অবরোধ তুলে নেওয়ার অনুরোধ করে। কিন্তু শ্রমিকরা তাদের দাবি আদায়ে অনড় থাকে। একপর্যায়ে শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ লাঠিপেটা করে। পরে উত্তেজিত শ্রমিকরা যানবাহনে হামলার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয় এবং ৫৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শিল্প পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার নুরুন্নবী ও ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন কম্পানির কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে বকেয়া বেতন পরিশোধের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। এ ঘটনায় ভালুকা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) আবুল কালাম, এএসআই ছালাম, কনস্টেবল সুজাসহ অন্তত ২০ জন শ্রমিক আহত হয়। পরে শ্রমিকরা মহাসড়ক ছেড়ে গেলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা