kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

বগুড়া-৬ উপনির্বাচন

খালেদা জিয়ার জন্য ফরম তোলা হবে

মনোনয়নপত্র নিচ্ছেন বিএনপির ৫ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বগুড়া-৬ আসনের উপনির্বাচনে দলের স্থানীয় চার নেতাকে মনোনয়নপত্র নিতে বলেছে বিএনপি। এ ছাড়া দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নামেও মনোনয়নপত্র নিতে বলা হয়েছে।

বিএনপি নেতারা বলেছেন, লন্ডনে থাকা দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এমন নির্দেশনা দিয়েছেন। তাঁরা বলছেন, গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বগুড়া জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের সঙ্গে স্কাইপে কথা বলেন তারেক রহমান। বিকেল ৪ থেকে প্রায় এক ঘণ্টা তিনি তাঁদের সঙ্গে কথা বলেন।

বগুড়া জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আরাফাতুল রহমান আপেল কালের কণ্ঠকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, তারেক রহমান এই উপনির্বাচনের জন্য প্রথমেই খালেদা জিয়ার জন্য মনোনয়নপত্র তুলতে বলেছেন। দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে বগুড়া জেলা বিএনপির আহ্বায়ক জি এম সিরাজকে মনোনয়নপত্র তুলতে বলেছেন।

আরাফাতুল রহমান জানান, অন্য যাঁদের মনোনয়নপত্র নিতে বলা হয়েছে তাঁরা হলেন বগুড়ার পৌর মেয়র মাহবুবুর রহমান, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির নেতা রেজাউল করিম বাদশা ও জয়নাল আবেদীন চাঁন।

বৈঠকে থাকা আরেক নেতা কালের কণ্ঠকে জানান, তারেক রহমান বলেছেন যে এই সরকারের ইশারায় খালেদা জিয়াসহ জ্যেষ্ঠ নেতাদের অনেকের মনোনয়ন বাতিল হতে পারে। সে কারণে প্রস্তুতি হিসেবে পাঁচজনকে মনোনয়নপত্র তুলে রাখতে বলেছেন।

বিএনপির শীর্ষ নেতার পক্ষ থেকে মনোনয়নপত্র তোলার এ নির্দেশনার মধ্যে দিয়ে বগুড়া-৬ আসনের উপনির্বাচনে দলের অংশ নেওয়ার বিষয়টি স্পষ্ট হলো। যদিও দলের পক্ষ থেকে এখনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি। দলটির একাধিক জ্যেষ্ঠ নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বৈধ না হলে জি এম সিরাজই প্রার্থী হচ্ছেন। গতকালের বৈঠকেও এমন আভাস পাওয়া গেছে। কারণ মনোনয়নপত্র তোলার ক্ষেত্রে তারেক রহমানের দ্বিতীয় পছন্দ সিরাজ।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৬ আসন থেকে নির্বাচিত হন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। নির্ধারিত সময়ে শপথ না নেওয়ায় আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরই মধ্যে নির্বাচন কমিশন ওই আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে। তফসিল অনুযায়ী, রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ২৩ মে এবং বাছাই ২৭ মে। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ৩ জুন। ২৪ জুন হবে ভোট।

জানা গেছে, এ উপনির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়া নিয়ে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন তারেক রহমান। এই আসনে শক্ত কাউকে (দলের সিনিয়র কোনো নেতা) মনোনয়ন দেওয়ার চিন্তা করলেও এতে অনেকেই রাজি হননি। বরং স্থানীয় কোনো শক্ত প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার পক্ষে মত দেন তাঁরা। এ ছাড়া জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাকে প্রার্থী হতে বিএনপির পক্ষ থেকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তবে এ ক্ষেত্রে একটি শর্তের কারণে তিনি রাজি হননি বলে জানা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা