kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

রেলসেবা অ্যাপস যেভাবে ব্যবহার করবে গ্রাহক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাউন্টারে নয়, ঘরে বসে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য চালু হয়েছে রেলসেবা অ্যাপস। এটি স্মার্টফোনে গুগল প্লেস্টোর থেকে ডাউনলোড করা যায়। এরপর জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিয়ে প্রথমে নিবন্ধন করতে হবে। এরপর সেখান থেকে টিকিট কাটা যাবে।

টিকিট কাটার ক্ষেত্রে টিকিট ক্রয়ের বাটনে চাপ দিতে হবে। তারপর প্রারম্ভিক রেলস্টেশন, গন্তব্য, তারিখ, কী কী ট্রেন চলাচল করে তার নাম, টিকিটের শ্রেণি পছন্দ করা যায় নির্বাচন করে নির্দিষ্ট স্থানে চাপ দিয়ে। তারপর যাত্রীসংখ্যা, শিশু আছে কি না, এসব জানার পর ভাড়ার তথ্য দেখা যাবে। মাস্টার ভিসা কার্ড, রকেট, বিকাশ, ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের নেক্সাস কার্ড, আমেরিকান এক্সপ্রেস কার্ডের মধ্যে যেকোনো একটি থেকে টিকিটের মূল্য পরিশোধ করা যায়।

একজন সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কাটতে পারবে। দিনে দুইবার হিসেবে আটটি টিকিট কাটতে পারবে টিকিটপ্রত্যাশী। বর্তমানে ঘণ্টায় ১৫ হাজার টিকিট বিক্রি করতে সক্ষম এই অ্যাপস। পরে এটির সক্ষমতা বাড়ানো হবে। অ্যাপসটি তৈরিতে নিরাপত্তা ইস্যু অন্তর্ভুক্ত করে ডিজাইন করা হয়েছে।

অ্যাপ ব্যবহারে করে সব আন্ত নগর ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যায়। নির্দিষ্ট গন্তব্যের ভাড়া ও টিকিট প্রাপ্যতা, ট্রেনের রুট, সময়সূচি, ট্রেনভিত্তিক বিরতি স্টেশনের নাম ও সময়, ভ্রমণবৃত্তান্ত, কোচের ছবি, আসন বাছাই করা যায় এই অ্যাপ ব্যবহার করে। গুরুত্বপূর্ণ রেলওয়ে স্টেশনের নম্বর, খাবারের তালিকা ও মূল্যও জানা যায় এই অ্যাপসে ঢুকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা