kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

বৃহদন্ত্রের ক্যান্সার থেকে বাঁচতে

১৯ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বৃহদন্ত্রের ক্যান্সার থেকে বাঁচতে

প্রক্রিয়াজাত মাংস পরিত্যাগ : বেশ কয়েক ধরনের ক্যান্সার সৃষ্টির নেপথ্যে প্রক্রিয়াজাত মাংসকে দায়ী করেছেন বিজ্ঞানীরা। ২০১৫ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বেকন বা সসেজের মতো প্রক্রিয়াজাত মাংসকে সিগারেটের মতোই মারাত্মক ক্যান্সার সৃষ্টিকারী বলে সাবধান করা হয়েছে। বাওয়েল ক্যান্সার ইউকে জানায়, প্রতিদিন ৫০ গ্রামের মতো প্রক্রিয়াজাত মাংস বাওয়েল ক্যান্সারের ঝুঁকি ২০ শতাংশ বাড়ায়।

আঁশযুক্ত খাবার : শস্যদানা, সবজি ও ফলের মতো আঁশযুক্ত খাবার প্রচুর পরিমাণে খেতে হবে। প্রাপ্ত বয়স্ক নারী ও পুরুষের প্রতিদিন ন্যূনতম পরিমাণে খাবার থেকে আঁশ গ্রহণ করা উচিত। ব্রিটিশ নিউট্রিশন ফাউন্ডেশন জানায়, পরিমাণটি গড়ে নারীদের জন্য ১৭ দশমিক ২ গ্রাম ও পুরুষদের জন্য ২০ দশমিক ১ গ্রাম। বয়স আরো বাড়লে পরিমাণটি গড়ে ৩০ গ্রামে দাঁড়াবে। আঁশযুক্ত খাবারের অভাবে বাওয়েল ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়তে থাকে।

স্বাস্থ্যকর ওজন : স্থূলতা কিন্তু ডায়াবেটিসের মতোই ভয়ংকর। এটা ক্যান্সারের দ্বিতীয় বড় কারণ। ব্রিটেনের ক্যান্সার গবেষণা সংস্থা জানায়, ক্যান্সার আক্রান্ত প্রতি ২০ জনের একজনই স্থূলতার কারণে এ রোগের শিকার। যেকোনো মানুষের ওজন স্বাভাবিকের ঘর ছাড়লেই তার ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে। কাজেই স্বাভাবিক ওজন থাকাটা জরুরি। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে পারেন।

নিয়মিত ব্যায়াম : যে মানুষ দৈহিক শ্রম দেন তাঁর বৃহদন্ত্রের ক্যান্সারের ঝুঁকি কম। আর ব্যায়ামের মাধ্যমে ঘাম ঝরে। তাই নিয়মিত শরীরচর্চা করতে হবে। এতে ওজনটাও নিয়ন্ত্রণে থাকবে। ব্যায়াম করলে সুখানুভূতি সৃষ্টিকারী হরমোনের ক্ষরণও ঘটে।

ধূমপান : এটা কেবল ফুসফুসেরই নয়, বাওয়েল ক্যান্সারও ঘটায়। গবেষণায় দেখা গেছে, ধূমপায়ীদের কোলন বা বাওয়েল ক্যান্সারের ঝুঁকি অধূমপায়ীদের তুলনায় ২১ শতাংশ বেশি। কাজেই ধূমপান ত্যাগ করতে হবে।

অ্যালকোহল : এই ক্ষতিকর পানীয় কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি ১৭ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়। যারা একটু বেশিই পান করে, তাদের ঝুঁকি ৩৩ শতাংশ বাড়ে। সচেতন হোন। ক্যান্সার থেকে বাঁচতে অ্যালকোহল ছাড়ুন।

হাফিংটন পোস্ট অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা