kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ মে ২০১৯। ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৫ রমজান ১৪৪০

গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষায় দুটি আইন আসছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষার জন্য সরকার গণমাধ্যমকর্মী আইন ও সম্প্রচার আইনের খসড়া দ্রুততম সময়ের মধ্যে অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভায় তুলতে চাইছে। এরপর এগুলো জাতীয় সংসদে অনুমোদনের জন্য তোলা হবে। বর্তমানে আইন দুটি যাচাই-বাছাইয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে আছে। গতকাল মঙ্গলবার তথ্য মন্ত্রণালয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ আইন দুটি অনুমোদন হলে গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষায় সহায়ক হবে বলে অভিমত দিয়েছেন। 

ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠকে তথ্যমন্ত্রী গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষার উদ্যোগ বিষয়ে এ তথ্য জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলেছি, যাতে স্বল্প সময়ের মধ্যে আমাদের কাছে আসার পর সেগুলো মন্ত্রিসভা হয়ে সংসদে উপস্থাপন করতে পারি। গণমাধ্যমকর্মী আইন ও সম্প্রচার আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। আইনটি অনুমোদন হলে সাংবাদিকদের চাকরির নিশ্চয়তাসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে সুরক্ষা নিশ্চিত হবে। ২৪ এপ্রিল (আজ) শুরু হওয়া সংসদের অধিবেশনে এ দুটি বিল পাঠানো সম্ভব হবে না। পরবর্তী অধিবেশনে তোলার চেষ্টা করছে সরকার।’

চাকরি হারানো সাংবাদিকদের জন্য আপৎকালীন ভাতা দেওয়ার বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করেছেন। কেউ মারা গেলে বা অসুস্থ হলে এই ট্রাস্ট ফান্ড থেকে সাহায্য করা যায়। বিদেশি চ্যানেলের মাধ্যমে হাজার কোটি টাকার বিজ্ঞাপন দেশের বাইরে চলে যাওয়ার প্রসঙ্গ তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলগুলোতে অর্থ সংকট হচ্ছে। ফলে সাংবাদিকদের বেতন দেওয়ায় সমস্যা হচ্ছে। বিদেশে বিজ্ঞাপন চলে না গেলে এগুলো হতো না। অন্য সমস্যা হলো, নিউ মিডিয়া—ইউটিউব, ফেসবুক, গুগলে আমাদের দেশের অনেক বিজ্ঞাপন চলে যাচ্ছে। এগুলো থেকে আমরা কোনো ট্যাক্স পাচ্ছি না।’

তথ্যমন্ত্রী জানান, গুগল, ইউটিউব, নেটফ্লিক্স প্রভৃতি অনলাইন মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার ও ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে নিয়মের মধ্যে আনা হবে। বাংলাদেশ ও ভারতে বিদেশি চ্যানেল ডাউনলিংক করার ফিসের সমতা আনতেও সরকার সচেষ্ট হবে। এ বছরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রামের পাশাপাশি সব সিটি করপোরেশন এলাকায় শুধু টিভির ডিজিটাল ব্যবস্থা চালুর উদ্যোগ নেওয়া হবে।

মন্তব্য