kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

অবৈধ সম্পদ অর্জন

মওদুদের মামলায় সাক্ষ্য দিলেন দুই ব্যাংক কর্মকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের বিরুদ্ধে করা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন ব্যাংকের দুই কর্মকর্তা। গত রবিবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এ তাঁরা সাক্ষ্য দেন। পরে বিচারক ড. শেখ গোলাম মাহবুব আগামী ২৫ এপ্রিল পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেন।

রবিবার এবি ব্যাংক নবাবপুর শাখার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শহিদুল হক ও অফিসার জাহাঙ্গীর আলম সাক্ষ্য দেন। মওদুদ আহমদের পক্ষে তাঁদের জেরা করা হয়। এ নিয়ে এই মামলায় ১২ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিলেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এক-এগারোর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ৩ জুলাই ব্যারিস্টার মওদুদকে তাঁর নিজের, স্ত্রীর ও পোষ্যদের নামে-বেনামে অর্জিত যাবতীয় স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ এবং এর উৎস জানতে চেয়ে নোটিশ দেয় দুদক। ওই সময় দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে থাকা অবস্থায় একই বছরের ২৩ জুলাই সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিল করেন মওদুদ।

পরে দুদকের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে যে তাঁর দাখিল করা হিসাব বিবরণীতে জ্ঞাত আয়ের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ নয়, এমন সাত কোটি ৩৮ লাখ ৬৪ হাজার ২৮৭ টাকা মূল্যের সম্পদ অর্জনসহ চার কোটি ৪০ লাখ ৩৭ হাজার ৩৭৫ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন।

একই বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর দুদকের উপসহকারী পরিচালক শরিফুল হক সিদ্দিকী বাদী হয়ে রাজধানীর গুলশান থানায় মওদুদের বিরুদ্ধে দুদক আইনে মামলা করেন। ২০০৮ সালের ১৪ মে মওদুদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। ২০১৭ সালের ২১ জুন মওদুদ আহমদের বিরুদ্ধে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ অভিযোগ গঠন করেন।

মন্তব্য