kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

বালুমহালে চাঁদাবাজি নিয়ে দ্বন্দ্ব

গফরগাঁওয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে বালুমহালের ইজারার টাকা আদায় নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় গুলি ও দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে ১২ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে তিনজনকে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত রবিবার সন্ধ্যায় পৌর শহরের জামতলা মোড়স্থ যুবলীগের অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে। এ সময় ১০-১২টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে একটিতে অগ্নিসংযোগ ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা হয়।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ কাওসার, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সানিল গ্রুপ ও পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তাজমুন আহমেদ গ্রুপের মধ্যে ব্রহ্মপুত্র নদের বালুমহালের ইজারার টাকা আদায়সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। গত রবিবার বিকেলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ কাওসার ও পৌর যুবলীগ সদস্য টিপুর মধ্যে বাগিবতণ্ডা হয়। সন্ধ্যার আগে চাঁদনী হল মোড়ে দুই গ্রুপের মধ্যে পুনরায় উত্তপ্ত বাগিবতণ্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে জামতলা মোড়ে যুবলীগের অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে কাওসার ও সানিল গ্রুপের ৫০ থেকে ৬০ জনের একটি দল তাজমুন গ্রুপের ওপর হামলা করতে এলে দুই গ্রুপের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়াধাওয়ি হয়। একপর্যায়ে কাওসার-সানিল গ্রুপ তাজমুন গ্রুপের ওপর হামলা চালায়। এতে গুলি ও রামদার আঘাতে পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তাজমুন আহমেদ (৩০), পৌর যুবলীগ সদস্য হৃদয় (২৬), বিপুল, তারা মিয়া, সোহেল, মোস্তাকিম, নাঈম, রাজন ও মাসুদ আহত হন। ঘটনার সময় ১০-১২টি মোটরসাইকেল কুপিয়ে ভাঙচুর করে একটিতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। পরে আশপাশের লোকজন আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় যুবলীগ নেতা তাজমুন আহমেদ, হৃদয় ও বিপুলকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। আকস্মিক এ ঘটনায় গফরগাঁও বাজারের ব্যবসায়ী ও পথচারীদের মধ্যে চরম ভয়-আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ব্যবসায়ীরা দ্রুত দোকানপাট বন্ধ করে এলাকা ত্যাগ করে। এ সময় চাঁদনী হল মোড়ে ১০-১২টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের শাটার কুপিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত করা হয়। এতে রুস্তম ও সোহাগ নামে দুজন ব্যবসায়ী আহত হন। ভয় ও উদ্বেগ-আতঙ্কে কয়েক মিনিটের মধ্যে পুরো এলাকা ফাঁকা হয়ে যায়। পরে গফরগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খানের নেতৃত্বে বাজারসহ ঘটনাস্থলের আশপাশে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ উদ্দিন বাদল বলেন, ‘আমি একটু দূরে আছি। অফিসে এসে সরাসরি কথা বলব।’

গফরগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান বলেন, ব্রহ্মপুত্রের বালুমহালের ইজারার টাকা আদায় নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে দ্বন্দ্বের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ মোতায়েন ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার অভিযান চলছে।

মন্তব্য