kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসী হামলা

বাধা দেওয়ায় পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে রক্তাক্ত

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম   

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুড়িগ্রামের রাজীবপুর থানা মোড় চত্বরে হযরত আলী নামে এক মোটরসাইকেল মেকারকে দোকানে প্রবেশ করে মারধরের পর তুলে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। এ সময় সেখানে সাদা পোশাকে উপস্থিত এক পুলিশ সদস্য এ ঘটনায় বাধা দিলে তাঁকেও মারধর করে রক্তাক্ত করা হয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ সেখানে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে ২০-৩০ জনের একটি সন্ত্রাসী দল পুলিশের ওপর চড়াও হয়। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত পুলিশ সদস্যের নাম শফিক আহমেদ।

রাজীবপুর থানা থেকে ৫০ গজ দূরে সন্ত্রাসী এই ঘটনায় পুলিশ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। মোটরসাইকেল মেকার হযরত আলী ১৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আহত পুলিশ সদস্য শফিক আহমেদ রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিত্সাধীন।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে জানা গেছে, উপজেলার করাতিপাড়া গ্রামের হাবিবুর রহমান নামের এক অটোচালককে কে বা কারা রাস্তায় মারধর করে। এ ঘটনার জের ধরে করাতিপাড়া গ্রামের মানুষ জোটবদ্ধ হয়ে থানা মোড় চত্বরে মোটরসাইকেল মেকারকে দায়ী করে এবং তাঁর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। দোকান থেকে তাঁকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ সুবল মিয়া (৪০), জহুরুল ইসলাম (৩২), জীবন মিয়া (৩০) এবং ইউসুফ আলীকে (৪২) আটক করে। পরে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

রাজীবপুর থানার ওসি (তদন্ত) পলাশ মণ্ডল জানান, সন্ত্রাসী ওই ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য