kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

শিবচরে স্কুলছাত্রী গণধর্ষণ

কামরাঙ্গীরচর থেকে পাকড়াও ধূর্ত ধর্ষক পারভেজ

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি    

২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাঙ্গার স্কুলছাত্রী গণধর্ষণে অভিযুক্ত মূল হোতা পারভেজকে মোবাইল ট্র্যাকিং প্রযুক্তির ব্যবহার করে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুুলিশ জানায়, ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়নের ব্রাক্ষণপাড়া গ্রামের দশম শ্রেণি পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রীর সঙ্গে একই এলাকার পারভেজ মুন্সির (২১) প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। গত ৫ মার্চ পারভেজ মেয়েটিকে পার্শ্ববর্তী মাদারীপুরের শিবচরের দত্তপাড়া ইউনিয়নের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে দুই সহযোগীসহ মেয়েটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন এবং জঘন্য অপকর্মের ওই দৃশ্য মোবাইল ফোনে ভিডিও করেন। তাঁরা মেয়েটিকে সেখানে ফেলে রেখে চলে যান। পরে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ধর্ষণের ভিডিও প্রকাশ করে দেন।

এ ব্যাপারে ভিকটিমের পরিবারের পক্ষ থেকে মাদারীপুর আদালতের মাধ্যমে শিবচর থানায় গণধর্ষণ ও এর ভিডিও প্রকাশের অভিযোগে মামলা হলে ধূর্ত পারভেজ ও তাঁর সহযোগীরা গাঢাকা দেন। পুলিশ দীর্ঘ চেষ্টার পর আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে পারভেজের অবস্থান নিশ্চিত হয় সম্প্রতি। এরপর গত বৃহস্পতিবার দুপুরে দত্তপাড়া পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের আইসি শওকত হোসেন ও এসআই মাজেদ মণ্ডলের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঢাকার কামরাঙ্গীরচর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ধর্ষক পারভেজকে গ্রেপ্তার করে।

শুক্রবার সকালে মাদারীপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এ বিষয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার বলেন, ‘ধর্ষণের মামলাগুলো আমরা খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখি। গণধর্ষণের মূল হোতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা