kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ৩ মে নেপিডোতে বৈঠক

যে নামেই হোক ‘নিরাপদ অঞ্চল’ চায় ঢাকা

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



যে নামেই হোক, মিয়ানমারের ভেতর রোহিঙ্গাদের জন্য ‘সেফ জোন’ (নিরাপদ অঞ্চল) প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করছে বাংলাদেশ। আগামী সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রুনেই সফরকালে মিয়ানমারের ভেতর রোহিঙ্গাদের জন্য ‘সেফ জোন’ প্রতিষ্ঠাসহ রোহিঙ্গা ইস্যুতে আলোচনা করবেন। এদিকে প্রায় ছয় মাস পর আগামী ৩ মে নেপিডোতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে বৈঠকে বসতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার। গত বছর অক্টোবর মাসে ঢাকায় যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের সর্বশেষ বৈঠকে ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর সিদ্ধান্ত হয়েছিল। তবে সেদিন একজন রোহিঙ্গাও মিয়ানমারে ফিরতে রাজি হয়নি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আগামী ৩ মে নেপিডোতে মিয়ানমারের সঙ্গে যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। ওই বৈঠকে বাংলাদেশের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অনুবিভাগের মহাপরিচালক দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমরা মিয়ানমার প্রতিনিধিদলকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলাম। কিন্তু গত দুটি বৈঠক এখানে হয়েছে। তাই তারা চাচ্ছে এবার বৈঠক ওখানে হোক। আমরা প্রাথমিকভাবে ৩ মে বৈঠকের তারিখ নির্ধারণ করেছি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা