kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

ববি উপাচার্যকে হটাতে সবাই একমঞ্চে

বরিশাল অফিস   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিক্ষার্থীদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলে গালি দেওয়া বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (ববি) উপাচার্য ড. এস এম ইমামুল হকের পদত্যাগ দাবিতে একাট্টা হয়েছে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় একাডেমিক ভবনের সামনে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের ব্যানারে অভিন্ন দাবিতে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে তারা।

নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের রাজাকারের বাচ্চা বলে গালি দেওয়ার প্রতিবাদে গত ২৬ মার্চ থেকে  উপাচার্য ইমামুল হকের পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শুরু করে।

প্রসঙ্গত, অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগসহ ১২ দফা দাবিতে নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (গ্রেড : ১৭-২০) কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ। 

অন্যদিকে গত ১০ এপ্রিল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি উপাচার্যের অনিয়মের প্রতিবাদ ও আট দফা দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সহমত পোষণ করে দুই ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজ শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যার যার অবস্থান থেকে একমত পোষণ করে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে মানববন্ধন করেছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার কোনো পরিবেশ নেই। এখানে নতুন নতুন নিয়ম আর আইন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কোনো কিছুতে কোনো নিয়ম বা আইন মানা হয় না। উপাচার্যের নিজের করা আইন দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় চলছে। এমনকি ১৫ দিনের ছুটিতে গেলেও ভিসি ঢাকার লিয়াজোঁ অফিসে থেকে বিভিন্ন ফাইল স্বাক্ষর করছেন, যা আইনত তিনি পারেন না।

দেড় ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য দেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সহসভাপতি সরদার কায়সার আহমেদ, সাবেক সভাপতি আরিফ হোসেন, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মিয়া, তানভীর কায়সার, শিক্ষার্থী প্রতিনিধি লোকমান হোসেন, আল আমিন, শফিকুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, তনুশ্রী ভট্টাচার্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা বরুণ কুমার দে, তৃতীয় শ্রেণি কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের সহসভাপতি হারুণ অর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক বনি আমিনসহ চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী পরিষদের নেতারাও।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা