kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

এনডিএমসির বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

দুর্যোগে করণীয় বিষয়ে প্রচারণা বাড়াতে হবে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দুর্যোগে করণীয় বিষয়ে প্রচারণা বাড়াতে হবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল চিকিৎসার জন্য চলচ্চিত্র অভিনেতা আহম্মেদ শরীফের হাতে অনুদানের অর্থ তুলে দেন। ছবি : পিআইডি

যেকোনো ধরনের দুর্যোগ মোকাবেলা ও প্রতিরোধে করণীয় সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে ব্যাপক প্রচার চালানোর নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী তাঁর কার্যালয়ে জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কাউন্সিলের (এনডিএমসি) বৈঠকে এ নির্দেশনা দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘নির্দেশনাগুলো ব্যাপকভাবে প্রচার করা দরকার। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান যেমন করবে, জাতীয়ভাবেও এটা করতে হবে যে যেকোনো দুর্যোগ এলে করণীয়টা কী, প্রচার দরকার। মানুষকে সচেতন করা দরকার। মানুষকে জানানো দরকার।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে দুর্যোগ আসছে ঠিক, কিন্তু আমরা এটা সামাল দিচ্ছি। এতটুকু একটা দেশে ১৬ কোটি মানুষের বসবাস। পশ্চিমা দেশে যদি এ রকম জনসংখ্যা হয়, তারা সামাল দিতে পারবে কি না, আমার সন্দেহ আছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আধুনিকায়ন মানুষকে আরাম দেয়, সুবিধা দেয়। আবার মাঝে মাঝে ঝুঁকিও সৃষ্টি করে। সেই ঝুঁকিটা যেন কমে। বিদ্যুৎ ব্যবহারে, গ্যাস সিলিন্ডার—এমনকি কোনো দাহ্য পদার্থ ব্যবহারে মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

বাংলাদেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগের পাশাপাশি অগ্নিকাণ্ডসহ বিভিন্ন ধরনের দুর্যোগের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘দুর্ঘটনা প্রতিরোধে কী কী ব্যবস্থা নিতে হবে, সেটাও দেখা দরকার। কারণ দুর্ঘটনারও প্রকৃতি বদলায়। দুর্যোগ আসতে পারে বা দুর্যোগ এলে কী করণীয়, সে ব্যাপারে মানুষকে সচেতন করা। শুধু দুর্ঘটনা ঘটলে সেটাকে সামাল দিতে হবে সেটা না, দুর্ঘটনাগুলো যাতে না ঘটে তার জন্য কী কী ব্যবস্থা নেওয়া দরকার, সেটাও আমাদেরকে চিন্তা করতে হবে, পরিকল্পনা করতে হবে এবং সেভাবে ব্যবস্থা নিতে হবে।’

দুর্যোগ মোকাবেলার বিষয়টি প্রতিনিয়ত পর্যালোচনা করা এবং করণীয় নির্ধারণ করারও পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। দুর্যোগ মোকাবেলায় সরঞ্জাম প্রতিনিয়তই বাড়ানো এবং জনবলের প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন উদ্যোগের কথা জানান তিনি।

মানুষের সৃষ্ট দুর্যোগ যাতে না হয় সে বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ক্ষতির পরিমাণ কত কম হতে পারে, সেটাই আমাদের দেখতে হবে, ব্যবস্থা নিতে হবে।’

নিজের কর্মস্থল বা আবাসে দুর্যোগ নিরাপত্তার বিষয়ে মানুষকে সচেতন হওয়া ও প্রস্তুতি রাখারও আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এনডিএমসিতে মন্ত্রী, সিনিয়র বেসামরিক কর্মকর্তা এবং তিন বাহিনীর প্রধানসহ সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তা এবং আইন-শৃঙ্খলা এজেন্সিগুলোর প্রধানরা রয়েছেন।

অভিনেতা আহমদ শরীফকে ৩৫ লাখ টাকা অনুদান

এদিকে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাবেক সভাপতি অভিনেতা আহমদ শরীফকে ৩৫ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আহমদ শরীফ ও তাঁর স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য এই অনুদান দেওয়া হয়।

গতকাল দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার কাছ থেকে অনুদানের চেক গ্রহণ করেন আহমদ শরীফ। এই অনুদান প্রদানের জন্য তিনি তাঁর ও তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা