kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

স্মৃতিসৌধ ও বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে আ. লীগের শ্রদ্ধা

‘গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এখন সময়ের দাবি’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ও গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, ‘পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে যারা দীর্ঘদিন ক্ষমতায় ছিল তারা ইতিহাস বিকৃত করেছে। এ দায় এড়াতে তারা একাত্তরের গণহত্যার বিচারকে বাধা দিয়েছে। সে কারণে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে এত বিলম্ব হচ্ছে। এ স্বীকৃতি এখন সময়ের দাবি। সরকার এ স্বীকৃতি আদায়ে কাজ করে যাচ্ছে।’

গতকাল মঙ্গলবার স্বাধীনতা দিবসে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে একাত্তরের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন হানিফ।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা : স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে গতকাল ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাসহ দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা এবং বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন। সকাল ৭টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির সামনে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা : স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া গতকাল সকালে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ ও কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এস এম কামাল হোসেন বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে নেতারা সুরা ফাতেহা পাঠসহ বঙ্গবন্ধু, ৩০ লাখ শহীদ, জাতীয় চার নেতা ও ’৭৫-এর ১৫ আগস্টের শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করেন।

এর আগে স্বাধীনতা দিবসের প্রথম প্রহরে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে স্বাধীনতা উদ্‌যাপন পরিষদের পক্ষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকার, জেলা পুলিশের পক্ষে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য খোন্দকার নাসির উদ্দিন, আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠন, গোপালগঞ্জ ও টুঙ্গিপাড়া পৌরসভাসহ বিভিন্ন সংগঠন ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়। ফুলে ফুলে ছেয়ে যায় সমাধিসৌধের বেদি।

স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা ও অন্যান্য : সকালে গোপালগঞ্জ শহরের বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানায়। পরে শেখ কামাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ ও শরীরচর্চা প্রদর্শন করা হয়। জেলার মসজিদ, মন্দির, গির্জা, প্যাগোডায় প্রার্থনা, হাসপাতাল, কারগার, শিশু পরিবারে উন্নমানের খাবার পরিবেশন, চলচ্চিত্র প্রদর্শন, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদ্যাপিত হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা