kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

ফখরুল বললেন

সুলতান মনসুর জনগণের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত সুলতান মোহাম্মদ মনসুর সংসদে যোগ দেওয়ায় তাঁর কঠোর সমালোচনা করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘মনসুর সাহেব নিজেকে জনগণের সামনে অত্যন্ত ছোট করে ফেলেছেন, ক্ষুদ্র করে ফেলেছেন। জনগণের প্রতিনিধি ছাড়া যে পার্লামেন্ট, সেই পার্লামেন্টে যোগ দিয়ে তিনি নিজেকে শুধু ক্ষুদ্রই করেননি, জনগণের সঙ্গে প্রতারণাও করেছেন।’

গতকাল শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক কর্মসূচি শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত মানববন্ধনে যোগ দেন মির্জা ফখরুল।

মৌলভীবাজার-২ আসনে গণফোরাম থেকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হন সুলতান মনসুর। গত বৃহস্পতিবার ঐতিহাসিক ৭ই মার্চে তিনি শপথ গ্রহণ করে সংসদে যোগ দেন। এ বিষয়ে মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘তিনি (সুলতান মোহাম্মদ মনসুর) যে দল থেকে মনোনয়ন নিয়েছিলেন, গণফোরাম ইতিমধ্যে তাঁকে বহিষ্কার করেছে, ঐক্যফ্রন্ট তাঁকে বহিষ্কার করেছে।’

সুলতান মনসুর চলে যাওয়ায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে এর কোনো প্রভাব পড়বে কি না জানতে চাইলে ফ্রন্টের মুখপাত্র বলেন, ‘সুলতান মনসুর ঐক্যফ্রন্টের ইম্পোর্টেন্ট কোনো ব্যক্তি নন। ঐক্যফ্রন্টে যাঁরা আছেন নেতৃবর্গ, তাঁরা সবাই একমত, সুলতান মনসুর খারাপ কাজ করেছেন, গর্হিত কাজ করেছেন।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে সরকারের সঙ্গে বিএনপি আলোচনা করছে কি না এবং সংসদে যোগ দিচ্ছেন কি না জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এ ধরনের কথাবার্তা শুধু গুজব। দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাংলাদেশে এ ধরনের গুজব ছড়ানো হচ্ছে। আমরা তো বলেই দিয়েছি সংসদে না যাওয়ার বিষয়টি।’

মহিলা দলের মানববন্ধনে যোগ দিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেছেন, ‘বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মুক্তি দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত এবং নারীসমাজের মুক্তিও দেশনেত্রীর মুক্তির সঙ্গে জড়িত।’ তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘বাংলাদেশে নারীরা সবচেয়ে বেশি নিগৃহীত হচ্ছে। এই দখলদার সরকার যারা সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণকে অধিকার বঞ্চিত করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করেছে তারা আজকে আমাদের মা-বোনদেরও রেহাই দিচ্ছে না, আমাদের মা-বোনদের নির্যাতন করে কারাগারে পাঠাচ্ছে।’

মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খানের পরিচালনায় মানববন্ধনে মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, সিনিয়র সহসভাপতি নুরজাহান ইয়াসমীন, সহসভাপতি জেবা আমিন খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য