kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

ডাকসু নির্বাচন

প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের ১৬ দফা ইশতেহার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ইশতেহার ঘোষণা করেছে বাম ছাত্রসংগঠনগুলোর মোর্চা ‘প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য’। এতে আবাসন সংকট নিরসন, দখলদারিত্বমুক্ত ও শিক্ষার্থীদের অধিকার বাস্তবায়নসহ ১৬টি প্রতিশ্রুতি ও দাবি আছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই ইশতেহার তুলে ধরেন প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যের সমন্বয়ক ইকবাল কবির।

ইশতেহারে আছে—সন্ত্রাস-দখলদারিত্বমুক্ত গণতান্ত্রিক বিশ্ববিদ্যালয় চাই; গেস্টরুম-গণরুমে ছাত্র নির্যাতন বন্ধ, মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত ও প্রথম বর্ষ থেকেই প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে বৈধ সিটের ব্যবস্থা করতে হবে; হল ও বিভাগ কর্তৃক অবৈধ ফি আদায় ও সব বাণিজ্যিক কোর্স বন্ধ, বিশ্ববিদ্যালয়কে বেসরকারি খাতের মুনাফার স্বার্থে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে পরিণত না করা; শিক্ষা-গবেষণা ও ছাত্র অধিকারসংশ্লিষ্ট খাতে বরাদ্দ বাড়ানো; তিয়াত্তরের অধ্যাদেশের অসম্পূর্ণতা দূর করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ স্বায়ত্তশাসন-স্বাধীনতা নিশ্চিত করা; বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ করতে হবে ইত্যাদি।

প্রশাসনের দাবি, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রবেশকারী সবাই ভোট দিতে পারবে : ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের দিন নির্ধারিত সময়ের মধ্যে যারা প্রবেশ করবে তারা সবাই ভোট দিতে পারবে বলে দাবি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি হলের প্রাধ্যক্ষদের নিয়ে করা এক সভা শেষে ওই দাবিসংবলিত ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ডাকসু নির্বাচনের প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর স্থাপন করা হবে। শিক্ষার্থীদের আইডি কার্ড দেখিয়ে ভোটকেন্দ্রে যাবে। ভোটার নিজের আইডি কার্ড দেখিয়ে ব্যালট পেপার সংগ্রহ করে প্রার্থীর নামের ডান পাশে নির্ধারিত ঘরে ক্রস (ী) চিহ্ন দিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে। দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ বুথ ও সহযোগিতার ব্যবস্থা রাখা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নির্বাচনের দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি প্রবেশপথ (নীলক্ষেত, শাহবাগ ও হাইকোর্ট) বিশেষ নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় থাকবে। এই তিনটি প্রবেশপথ দিয়ে শুধু ভোটার ও নির্বাচনসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা পরিচয়পত্র দেখিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঢুকবে এবং বেরোবে।  বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ধারিত ও স্টিকারযুক্ত যানবাহন ছাড়া কোনো যানবাহন ক্যাম্পাসে ঢুকতে পারবে না।

গণমাধ্যমকর্মীদের বিষয়ে সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, নির্বাচনের দিন গণমাধ্যমকর্মীরা চিফ রিটার্নিং অফিসারের পক্ষ থেকে ইস্যু করা পরিচয়পত্র দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট হলের রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি নিয়ে ভোটকেন্দ্রের নির্ধারিত স্থান পর্যন্ত ঢুকতে পারবেন। তবে ভোটকেন্দ্র থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা যাবে না। ভোটগ্রহণ কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হতে পারে এমন কোনো কাজ করা যাবে না।

মন্তব্য