kalerkantho

ফতুল্লায় শামীম ওসমান

নির্যাতনের শিকার হয়েও বিএনপির কাউকে কিছু বলিনি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, ‘২০০১ সালের নির্বাচনের পর আমার নারী পোলিং এজেন্টকে বিএনপির লোকজন ধর্ষণ করেছিল। অনেক নেতাকর্মীর ওপর হামলা করা হয়েছে, হত্যা করা হয়েছে। আমার ভাই হওয়ার অপরাধে সেলিম ওসমানের কারখানায় হামলা করা হয়েছিল। আমার বাড়ি হীরা মহলে আগুন দেওয়া হয়েছিল। তার পরও আমি বিএনপির কাউকে কিছু বলিনি।’

গতকাল শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা পাইলট স্কুল মাঠে আয়োজিত নির্বাচনী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, ‘টাকা দিয়ে, মানুষকে ধোঁকা দিয়ে, ধান্দাবাজি করে নির্বাচনে আমি ভোট চাইব না। আমি অভয় দিচ্ছি, না বুঝে কাউকে সমর্থন করবেন না। নির্বাচন আসছে, অনেকেই এসে নাটক করবে; মসজিদ, মাদরাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে লাখ লাখ টাকা অনুদান দেবে। কিন্তু আমি বলছি, কারো ধোঁকাবাজিতে পা দেবেন না। মনে রাখবেন, ভুল জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করলে সমাজ নষ্ট হয়ে যাবে, উন্নয়ন বন্ধ হয়ে যাবে। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি বেড়ে যাবে।’

ফতুল্লা থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ফরিদ আহম্মেদ লিটনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফউল্লাহ বাদল, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সানাউল্লাহ, সাংগঠনিক সস্পাদক মীর সোহেল, অধ্যাপক শিরিন আক্তার প্রমুখ।

 

মন্তব্য