kalerkantho

সোমবার। ১৭ জুন ২০১৯। ৩ আষাঢ় ১৪২৬। ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

হেলমেটধারীদের নিয়ে ফখরুলের বক্তব্য

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাইতে হবে : ছাত্রলীগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর নয়াপল্টনে সংঘর্ষের সময় পুলিশের গাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনায় ছাত্রলীগকে জড়িয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দেওয়া বক্তব্যকে নির্লজ্জ মিথ্যাচার বলে দাবি করেছে ছাত্রলীগ। ‘ছাত্রলীগের হেলমেট বাহিনী পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়িতে আগুন দিয়েছে’—এই বক্তব্যের জন্য মির্জা ফখরুলকে ক্ষমা চাওয়ার জন্য ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়েছে সংগঠনটি। একই সময়ের মধ্যে এই বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য আহ্বান জানিয়ে ছাত্রলীগ বলেছে, তা না হলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয় ঘেরাও করা হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য চত্বরে ছাত্রলীগের এক প্রতিবাদ সমাবেশে এ হুঁশিয়ারি দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। সমাবেশে সংগঠনের সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভনও বক্তব্য দেন।

এর আগে বিক্ষোভ মিছিল করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজু ভাস্কর্য চত্বরে এসে শেষ হয়।

গোলাম রাব্বানী বলেন, সারা দেশের মানুষ যখন নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে তখন মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের নেতৃত্বে বিনা উসকানিতে ছাত্রদলের ক্যাডাররা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও সাধারণ মানুষের ওপর হামলা করেছে। যানবাহন ভাঙচুর করা হয়েছে, সরকারের সম্পত্তি বিনষ্ট করা হয়েছে। উল্টো এর দায় চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ওপর। তিনি দাবি করেন, যারা হামলা করেছে তারা সবাই ছাত্রদল ও বিএনপির ক্যাডার। অথচ মির্জা ফখরুল তাদের ‘হেলমেট বাহিনী’ বলে নির্লজ্জ মিথ্যাচার করেছে। এ মিথ্যাচারের কারণে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মির্জা ফখরুল, মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবেন বলে জানান তিনি।

রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, বিএনপি-জামায়াত দেশের সম্পদ বিনষ্ট করেছে। নির্বাচনের সময় যত ঘনিয়ে আসছে, বিএনপি-জামায়াতের ক্যাডাররা তত উচ্ছৃঙ্খল হচ্ছে। তাদের ব্যাপারে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের আরো সজাগ থাকতে হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা