kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

‘হাসিনা : আ ডটার’স টেল’

শেখ হাসিনাকে নিয়ে চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনাকে চিত্রায়িত করতে নির্মিত হয়েছে ডকু-ফিল্ম ‘হাসিনা : আ ডটার’স টেল’। এই ডকু-ফিল্মে পঁচাত্তর-পরবর্তী শেখ হাসিনাকে চিত্রায়ণ করা হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সে এর প্রিমিয়ার শো অনুষ্ঠিত হবে।

রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানানো হয়। এ সময় বক্তব্য দেন সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) নির্বাহী পরিচালক সাব্বির বিন শামস, পরিচালক পিপলু খান, শিবু কুমার শীল ও সৈয়দ গাউসুল আলম শাওন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দেশের চারটি সিনেমা হল ঢাকার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স, যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টার ও মতিঝিলের মধুমিতা এবং চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিনে ১৬ নভেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে এই ডকু-ড্রামা প্রদর্শিত হবে। পরবর্তী সময়ে দেশের সব সিমেনা হল, দেশ-বিদেশের টেলিভিশন ও অনলাইনে এটি মুক্তি দেওয়া হবে।

জানা যায়, ৭০ মিনিট দৈর্ঘ্যের এই ফিল্ম নির্মাণ করতে পাঁচ বছরের বেশি সময় লেগেছে। এর মধ্যে দুই বছর তথ্য সংগ্রহ আর তিন বছর চূড়ান্ত রূপ দিতে ব্যয় হয়েছে। এটি প্রযোজনা করেছে সিআরআই। প্রযোজক সিআরআইয়ের ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ও নসরুল হামিদ বিপু। পরিচালনা করেছেন অ্যাপল বক্স ফিল্মসের পিপলু খান। সংগীত আয়োজন করেন দেবজ্যোতি মিস্ত্র, সিনেমাটোগ্রাফিতে ছিলেন সাদিক আহমেদ এবং সম্পাদনা করেছেন নবনিতা সেন।

পরিচালক পিপলু খান বলেন, ‘দেশের রাজনীতিতে সবচেয়ে বড় আইকন শেখ হাসিনাকে চিত্রায়ণ করা সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। নানা ঘাত-প্রতিঘাতের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার এগিয়ে চলার বিষয়টি আমাকে আকৃষ্ট করেছে। এতে শেখ হাসিনার দর্শন কিংবা ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব সম্পর্কিত কোনো বিষয় নেই। তুলে ধরা হয়েছে ব্যক্তি শেখ হাসিনাকে; পিতার মৃত্যুর পর পঁচাত্তর-পরবর্তী সময়ে তাঁর এগিয়ে চলাকে। পিতার মৃত্যুর পর বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করার ওপরই জোর দিয়েছেন শেখ হাসিনা। তাঁর জীবন-দর্শনে পিতার বাইরে কোনো কিছুই নেই। এ জন্য সিনেমাটির নামকরণ করা হয়েছে ‘হাসিনা : আ ডটার’স টেল’।

তিনি আরো বলেন, ‘চলচ্চিত্রটিতে ইতিহাসের এমন কিছু বিষয় তুলে ধরা হয়েছে, যেগুলো আমরা অনেকেই হয়তো জানি। তবে সেসব দেখার ভঙ্গিতে এই ডকু-ফিল্ম নতুনত্ব এনে দেবে বলে মনে করি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে মুভিটি হলেও ফিল্মটিকে অন্যভাবে দেখার সুযোগ নেই। এতে নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে একজন ব্যক্তিকে তুলে ধরা হয়েছে।’

সাব্বির বিন শামস বলেন, ‘উন্নয়ন ও দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া শেখ হাসিনাকে আমরা সবাই দেখেছি। কিন্তু বাংলাদেশের তরুণরা তাঁকে ভালোভাবে চেনে না। নব্বইয়ের দশকের শেখ হাসিনার অনেক সংগ্রাম তারা জানেই না। এ জন্য রাজনীতির বাইরে গ্রহণযোগ্যভাবে শেখ হাসিনাকে তুলে ধরা হয়েছে।

মন্তব্য