kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

জাতীয় ঐক্য নিয়ে আলোচনা সারলেন নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যুক্তফ্রন্টের নেতারা জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছেন। গতকাল রবিবার রাত সাড়ে ৮টায় বিকল্প ধারা বাংলাদেশের মহাসচিব মেজর (অব.) আব্দুল মান্নানের বাসায় এ বৈঠক হয়।

বৈঠকে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল ও বিকল্প ধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর যৌথ নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত হয়। এই ঐক্যের রূপরেখা তৈরিতে আজ সোমবার আবারও বৈঠক করবেন সংশ্লিষ্ট নেতারা। ড. কামাল হোসেনের বেইলি রোডের বাসভবনে এ বৈঠক হবে বলে জানা গেছে।

এ ছাড়া যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরামের যৌথ নেতৃত্বে আগামী ঈদুল আজহা শেষে মহাসমাবেশসহ আরো অন্যান্য কর্মসূচি নেওয়া হবে বলে জানা গেছে। ড. কামাল হোসেন আগামী ২২ সেপ্টেম্বর রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যে সমাবেশের ডাক দিয়েছিলেন তা যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরামের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হবে। এ সভায় সভাপতিত্ব করবেন ড. কামাল হোসেন ও প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন বি চৌধুরী।

বৈঠকে উপস্থিত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, বৈঠকে যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরাম একমত পোষণ করে বলেছে, বর্তমানে দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন নেই। এই অবস্থায় তারা গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে রাজপথে নামার বিষয়ে সম্মত হয়েছে।

জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন বলেন, যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান বি চৌধুরী ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের যৌথ নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত হয়। ঈদুল আজহা শেষে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঘোষণা দেওয়া হবে।

সূত্র বলছে, বৈঠকে দেশের বর্তমান আইনের শাসন, গণতন্ত্রসহ আরো অন্যান্য বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এসব আলোচনার পর সবাই সম্মিলিত ঐক্যমত পোষণ করেছেন, এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। বৈঠকে বিএনপির অবস্থান নিয়েও আলোচনা করেন নেতারা। এর মধ্যে ২০ দলীয় জোটের শরিক জামায়াতকে নিয়ে বিএনপির অবস্থান এখনো পরিষ্কার নয় বলে তাঁরা মত প্রকাশ করেছেন। এ কারণে তাঁরা বিএনপির কাছে স্পষ্টভাবে জানতে চাইবেন এ বিষয়ে। তবে জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে নীতিগতভাবে একমত পোষণ করেন তাঁরা।

নেতারা বলেন, বিএনপি এখনো জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে তাদের রূপরেখা স্পষ্ট করেনি। এর মধ্যে জাতীয় ঐক্যে ২০ দলীয় জোট আসবে কি না, আবার জোট আসলে সেখানে জামায়াত থাকবে কি না, তা স্পষ্ট জানতে চাওয়া হবে।

বৈঠকে ড. কামাল হোসেন, ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আব্দুল মান্নান, জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন ছাড়াও বেশ কয়েকজন নেতা উপস্থিত ছিলেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা