kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ মে ২০১৯। ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৭ রমজান ১৪৪০

ছাত্রলীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে নেতারা

৭০০ ফেসবুক আইডি শনাক্ত ব্যবস্থা চাই

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সব দাবি প্রধানমন্ত্রী মেনে নিলেও বিএনপি-জামায়াত ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চেয়েছিল। তারা শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলন ভণ্ডুলের ব্যর্থ চেষ্টা চালিয়েছিল। তাতে ব্যর্থ হয়ে তারা ছাত্রলীগকে সন্ত্রাসী সংগঠন বানানোর অপচেষ্টা চালিয়েছে। আমরা ইতিমধ্যে ৭০০ ফেসবুক আইডি শনাক্ত করেছি, যারা এই অপচেষ্টা চালিয়েছে। এদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে গতকাল বৃহস্পতিবার ছাত্রলীগ আয়োজিত ‘সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে’ সংগঠনের নেতারা এসব কথা বলেন। ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইনসহ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার নেতাকর্মীরা সমাবেশে উপস্থিত ছিল।

রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে নেতৃত্বদানকারী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে আজ সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের এই অপচেষ্টা নস্যাৎ করতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সজাগ রয়েছে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা থাকতে সাম্প্রদায়িক শক্তি কোনো দিন সফল হবে না।’

গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘আমাদের ধারণা ছিল যে নিরাপদ সড়কের দাবিতে সারা বাংলার ছাত্রসমাজের আন্দোলনে জামায়াত-শিবির অংশ নিতে পারে। তাই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের প্রতি নির্দেশনা ছিল যে তারা প্রতিটি পয়েন্টে থাকবে; তবে কোনো সংঘর্ষে জড়াবে না। আর তাই আন্দোলনের শেষের দিকে আমাদের ৭১ জন সহযোদ্ধা আহত হয়। তবে আক্রান্ত হওয়ার পরও তারা কোনো সংঘর্ষে যুক্ত হয়নি।’

মন্তব্য