kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

খাদ্যমন্ত্রী বললেন

সন্ত্রাস পরিহার করলে সংলাপ হতেও পারে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে নাগরিক সমাজের যে প্রতিনিধিরা সংলাপের প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন তাঁদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেছেন, 'আপনারা যাঁরা সংলাপের কথা বলেন তাঁরা বিএনপিকে পরামর্শ দেন এবং বোঝান, বিএনপি যেন নাশকতা ও সন্ত্রাসের পথ পরিহার করে। তাহলে তাদের সঙ্গে সংলাপ হলেও হতে পারে।' তিনি গতকাল সোমবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ২০ দলীয় জোটের হরতাল-অবরোধের প্রতিবাদে এক অবস্থান সমাবেশে এসব কথা বলেন। সম্মিলিত আওয়ামী সমর্থক জোট এ সমাবেশের আয়োজন করে।

কামরুল ইসলাম বলেন, 'বিএনপির হরতাল-অবরোধ কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি নয়, এটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। যাঁরা বিএনপির সঙ্গে সংলাপের কথা বলেন তাঁরা প্রকৃতপক্ষে নাশকতা ও সন্ত্রাসকে রাজনৈতিক কর্মসূচি মনে করেন। নাশকতা-সন্ত্রাস না ছাড়লে বিএনপির সঙ্গে কোনো সংলাপ হবে না।'

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হক সবুজ। আরো বক্তব্য দেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, দপ্তর সম্পাদক সহিদুল ইসলাম মিলন, উপদপ্তর সম্পাদক জামাল উদ্দিন প্রমুখ।

এদিকে হরতালের প্রতিবাদে এক মানববন্ধনে পেট্রলবোমা নিক্ষেপকারীদের মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে একটি আইন করার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেছেন, 'আইনমন্ত্রীকে আহ্বান জানাই, হরতাল-অবরোধে যারা পেট্রলবোমা ছোড়ে তাদের মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে আইন প্রণয়ন করুন। এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত বিচার নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করুন।' তিনি গতকাল সকালে রাজধানীর প্রেসক্লাবের সামনে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ) আয়োজিত এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা