kalerkantho

মঙ্গলবার। ১৮ জুন ২০১৯। ৪ আষাঢ় ১৪২৬। ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

ক্ষমাপত্রে স্বাক্ষর

দুবাইতে শিরশ্ছেদ থেকে রক্ষা পাচ্ছেন দুই বাংলাদেশি

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুবাইতে এক বাংলাদেশিকে হত্যার অপরাধে শিরশ্ছেদের দণ্ডপ্রাপ্ত অপর দুই প্রবাসী বাংলাদেশি নিশ্চিত শিরোশ্ছেদের হাত থেকে রক্ষা পেতে যাচ্ছেন। গতকাল সোমবার মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার কেইয়ান ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে উভয় পরিবারের উপস্থিতি ও সম্মতিতে ক্ষমাপত্রে স্বাক্ষর নেওয়া হয়। এর বিপরীতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে নিহতের পরিবারকে ১২ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে। স্বাক্ষরিত ক্ষমাপত্র নোটারি করে আইন মন্ত্রণালয় ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে দুবাই সরকারের কাছে পাঠানো হবে। অভিযুক্তরা বর্তমানে শিরশ্ছেদের সাজা নিয়ে দুবাই কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

নিহত ব্যক্তি হলেন মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার কেইয়ান ইউনিয়নের কোর্টগাঁও গ্রামের সামাদ তালুকদারের ছেলে প্রবাসী নূর মোহাম্মদ (২৭)। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার সিরস্থান গ্রামের রওশন আলীর ছেলে কামাল হোসেন ও টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার কুরশি গ্রামের আরশাদ আলীর ছেলে সাজদু মিয়া।

ক্ষমাপত্রে স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিরাজদিখান উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, ইউএনও আবুল কাশেম, জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম, কেইয়ান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল বারেক প্রমুখ। সংশ্লিষ্টরা জানান, মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদলের চেষ্টায় ক্ষমাপত্রে স্বাক্ষরের সমঝোতা হয়। তিনি দুই দফায় সজেমিন সিরাজদিখানে এসে নিহতের পরিবারকে রাজি করান।

জেলা জনশক্তি ও কর্মসংস্থান অফিসের জরিপ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আরতাফ হোসেন জানান, ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে দুবাইতে খুন হন মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানের নূর মোহাম্মদ। তাঁকে খুন করে অপর দুই প্রবাসী বাংলাদেশি চাঁদপুরের কচুয়ার কামাল হোসেন ও টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীর সাজদু মিয়া।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা