kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নানাবাড়ি যেতে বায়না, অভিমানে শিশুর আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক   

১ অক্টোবর, ২০২২ ১০:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নানাবাড়ি যেতে বায়না, অভিমানে শিশুর আত্মহত্যা

কদমতলীতে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে এক স্কুল ছাত্র শিশু আত্মহত্যা করেছে। কদমতলী থানাধীন শনির আখড়ার পলাশপুরে নিজ বাসায় মায়ের সঙ্গে অভিমানে রেদোয়ান ইসলাম আদর (১২) নামে ওই শিশু ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। স্থানীয় স্কুলের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ত সে। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

বর্তমানে পলাশপুরে নিজ ফ্ল্যাটে পরিবারের সঙ্গে থাকত সে। তাদের গ্রামের বাড়ি ভোলা সদর উপজেলায়। এক ভাই এক বোনের মধ্যে আদর ছিল ছোট।

মৃতের বাবা মাহবুব আলম জানান, আমি গাজীপুরে নোমান গ্রুপের অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত। আমি সেখানেই ছিলাম। আজ বিকেলে ছেলে আদর তার
মা জাহানারা বেগমকে বলেছিল, সে বরিশালের উজিরপুরে নানাবাড়িতে বেড়াতে যাবে। তার মা বলেছিল তোমার দুই তারিখে ডাক্তার দেখানোর কথা রয়েছে । ছেলে আদরের স্কিনের সমস্যা। এ নিয়ে একটু মান-অভিমান করে মায়ের সঙ্গে কথা বলছিল না সে।

সন্ধ্যায় রুমের দরজা বন্ধ করে জানালার গ্রিলের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেয় আদর। পরে অনেক ডাকাডাকির পর তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙে সেখান থেকে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে রাত সাড়ে ৯টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, শিশুর মরদেহ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে অবগত করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা