kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সমাজকে মাদকমুক্ত করতে নীতিনির্ধারক অংশীজনদের দায়িত্ব নিতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২২:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সমাজকে মাদকমুক্ত করতে নীতিনির্ধারক অংশীজনদের দায়িত্ব নিতে হবে

প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আবদুল ওয়াহাব। ছবি- কালের কণ্ঠ।

সমাজকে মাদক মুক্ত করতে হবে। মাদক নির্ভরশীলতার কারণে মানুষের শারীরিক, মানসিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক সমস্যা সৃষ্টি হয়। তবে যারা এরই মধ্যে মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছে, চিকিত্সার মাধ্যমে তাদের সুস্থ করে তুলতে হবে। এদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনে নীতিনির্ধারকসহ বিভিন্ন অংশীজনদের দায়িত্ব নিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

এতে তাদের সম্পৃক্ত হওয়া উচিৎ।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডির ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন কার্যালয় মিলনায়তনে মাদক থেকে সুস্থ হওয়া শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন  শ্রেণী পেশার মানুষের পুনর্মিলনী উপলক্ষে এক আলোচনা সভার প্রধান অতিথি আবদুল ওয়াহাব বক্তব্যে এসব কথা বলেন। এ বিষয়ে এ মাসের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো, ‘এভরি পার্সন, এভরি ফ্যামেলি, এভরি কমিউনিটি। '

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের বক্তব্যে, সমাজের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ও বৈষম্য কমানোর মাধ্যমে মাদক থেকে সুস্থতা পাওয়ার বিষয়ে অনুপ্রাণিত করার বিষয়ে উঠে এসেছে। এ সময় যারা মাদক থেকে ফিরে নতুন জীবনের স্বপ্ন দেখতে তাদের অনুপ্রাণিত করা হয়।

এছাড়া, এই চলমান প্রক্রিয়ায় নিজেদেরকে একা না ভেবে সামনে কিভাবে সুস্থ সুন্দর জীবন গড়া যায় সেবিষয়ে আলোচনা করা হয়। বিশেষ করে তারা এর থেকে বের হয়ে সমাজে স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারে, সে বিষয়ে লজ্জা বা সংকোচ বোধ না করার বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের নির্বাহী পরিচালক মো. সাজেদুল কাইয়ুম দুলালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আবদুল ওয়াহাব ভূঞা, বিশেষ অতিথি হিসেবে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিত্সা ও পুনর্বাসন) মো. মাসুদ হোসেন।

এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক পরিচালক অধ্যাপক ডা. বিধান রঞ্জন রায় পোদ্দার ও মালয়েশিয়ার সোলেস মাদকাসক্তি চিকিত্সা কেন্দ্রে প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রেম কুমার উপস্থিত ছিলেন। আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রের আবাসিক মনোচিকিত্সক ডা. রাহানুল ইসলাম।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সেপ্টেম্বর মাসকে সারা বিশ্বে মাদক ‘রিকভারি’ মাস হিসেবে উদযাপন করা হয়।



সাতদিনের সেরা