kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

২০৭ বাংলাদেশিকে ফেরার সুযোগ দিতে বাহরাইনকে অনুরোধ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২১:৫৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



২০৭ বাংলাদেশিকে ফেরার সুযোগ দিতে বাহরাইনকে অনুরোধ

আরো ২০৭ বাংলাদেশিকে বাহরাইনে ফেরার সুযোগ দিতে বাহরাইন কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছে সরকার। ওই বাংলাদেশিরা কভিড মহামারির কারণে বাংলাদেশে আটকা পড়েছেন। বাহরাইনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম গতকাল সোমবার বাহরাইন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কনস্যুলার ও প্রশাসনিকবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি ড. মুহাম্মদ আলী বাহজাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ২০৭ বাংলাদেশির তালিকা হস্তান্তর করেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ফ্যামিলি ভিসার ব্যাপারেও আলোচনা করেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি এ সম্পর্কিত ১৫০ জনের তালিকা হস্তান্তর করেন। তিনি দ্রুততম সময়ে ১৫০ জনকে বাহরাইনে তাদের পরিবারের সঙ্গে একত্রিত হওয়ার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানান। বাহরাইনের আন্ডার সেক্রেটারি বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতকে এসব বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, বাহরাইনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কনস্যুলার ও প্রশাসনিকবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারির সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ ও বাহরাইনের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বৃদ্ধি, ব্যবসা-বাণিজ্য ও পর্যটন শিল্পের প্রসারসহ প্রবাসী বাংলাদেশিদের কল্যাণ ও ভিসা সহজীকরণের বিষয়ে কথা বলেন। রাষ্ট্রদূত কভিডকালীন বাহরাইন সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন অগ্রযাত্রার সাফল্যগাথা তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রদূত ইসলাম কভিডকালীন সময়ে আটকে পড়া ১৬১ জন প্রবাসীদেরকে ফিরিয়ে আনার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানান।

আন্ডার সেক্রেটারি ড. বাহজাদ ‘মানামা ডায়ালগে’ অংশ নিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনকে বাহরাইন সফরে বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল লতিফ বিন রাশিদ আল জায়ানির আমন্ত্রণের বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম মানামা ডায়ালগের ফাঁকে দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পর্যায়ে আলোচনার ব্যাপারে বাংলাদেশের আগ্রহের কথা তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম বাংলাদেশে বাহরাইনের দূতাবাস স্থাপনের আহ্বান জানান। তিনি বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাসের জন্য ‘ডিপ্লোম্যাটিক প্লট’ বরাদ্দের অনুরোধ জানান। রাষ্ট্রদূত বাহরাইনের বাদশাহর দেওয়া জমিতে বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে বাংলাদেশ স্কুল নির্মাণ প্রকল্পের বিষয়ে তাঁকে অবহিত করেন এবং এ ব্যাপারে তার সহযোগিতা কামনা করেন।

আন্ডার সেক্রেটারি বাহজাদ বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন অগ্রযাত্রার প্রশংসা করেন এবং বাহরাইনের অর্থনীতিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অবদানের কথা বলেন। এ ছাড়া তিনি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে একমত পোষণ করে দু'দেশের মধ্যকার ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির ওপর জোর দেন এবং এ লক্ষ্যে তার প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন। রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান এ কে এম মহিউদ্দিন কায়েস উপস্থিত ছিলেন।



সাতদিনের সেরা