kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০২২ । ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বাংলাদেশের অর্থনীতির লাইফলাইন চট্টগ্রাম বন্দর : নৌ প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক    

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১৯:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশের অর্থনীতির লাইফলাইন চট্টগ্রাম বন্দর : নৌ প্রতিমন্ত্রী

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘চট্টগ্রাম বন্দরকে নিয়ে আমাদের অনেক প্রত্যাশা। সবচেয়ে বড় আড়তের কাজ করে চট্টগ্রাম বন্দর। এ বন্দরটি ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে। বন্দরের কাজে কিছুটা সমস্যা আছে।

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রাম বন্দর, কাস্টমস ও ব্যবসায়ীদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে। চট্টগ্রাম বন্দর বাংলাদেশের অর্থনীতির লাইফলাইন। এ লাইফলাইনকে আরো ছড়িয়ে দিতে চাই। ’

আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘দেশীয় বিনিয়োগে চট্টগ্রাম বন্দরের উন্নয়ন’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, কিছু জটিলতায় কাস্টমস ও ব্যবসায়ীরা একে অপরকে দোষারোপ করে থাকে। কাস্টমস জটিলতা দূর করতে মালামাল ছাড়ানোর জন্য ব্যবসায়ীদের সব কাগজপত্র প্রস্তুত রাখতে হবে। এর পরও মালামাল ছাড় করতে কারো কোনো অবহেলা থাকলে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাস্টমস ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে চট্টগ্রাম বন্দর মালামাল ছাড় করে থাকে। চট্টগ্রাম বন্দরের উন্নয়নে দেশীয় বিনিয়োগের পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগও চাই। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর দেশীয় বিনিয়োগের মাধ্যমে এ পর্যায়ে গেছে। মোংলা বন্দর ও পায়রা বন্দর এগিয়ে যাচ্ছে। চট্টগ্রাম বন্দরের অর্থে পায়রা বন্দরের উন্নয়ন হচ্ছে। চট্টগ্রাম বন্দরের বে টার্মিনাল নির্মাণের ক্ষেত্রে একটি টার্মিনাল চট্টগ্রাম বন্দরের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। এতে চট্টগ্রাম বন্দরের রাইট (অধিকার) প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। চট্টগ্রাম বন্দরের অধিকার মানে বাংলাদেশের অধিকার। জাপানের অর্থায়নে মাতারবাড়ীতে গভীর সমুদ্রবন্দর হচ্ছে। পায়রা বন্দরের ফার্স্ট টার্মিনাল ও আন্ধারমানিক নদীর ওপর সেতু নির্মাণের কাজ চলছে। মোংলা বন্দরের আউটার বারে ড্রেজিং হয়েছে এবং ইনার বারে ড্রেজিং চলছে। পদ্মা সেতু হয়ে গেছে। মৃতপ্রায় মোংলা বন্দরকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে লাভের ধারায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে। কিছু করতে হবে―বাংলাদেশ এখন আর সে চিন্তায় নাই; বাস্তবায়নে আছে। ২০২৬-২৭ সালের দিকে বাংলাদেশকে অন্য ধরনের মেরিটাইম সেক্টর হিসেবে দেখতে পাব।

তিনি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে চট্টগ্রাম বন্দর। অভ্যন্তরীণ নৌপথে পণ্য পরিবহনের লক্ষ্যে চট্টগ্রাম-ঢাকা নৌপথ বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় ড্রেজিং করা হচ্ছে। মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়ায় কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণের সমীক্ষা হচ্ছে। নৌপথে কনটেইনার নিয়ে আসার কথা ভাবতে হবে।



সাতদিনের সেরা